শেষ হলো তিনদিনের ডিসি সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২২ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০২২
ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসকসহ অন্যরা

শেষ হলো তিনদিন ধরে চলা জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দু-বছর পর গত মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে শুরু হয়েছিল এই সম্মেলন। বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সঙ্গে ডিসিদের দশম অধিবেশনের মাধ্যমে শেষ হয় এবারের সম্মেলন।

অন্যান্য বছর কার্য অধিবেশনগুলো মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষে হলেও এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে পুরো সম্মেলনই হয়েছে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে।

গত মঙ্গলবার সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন-২০২২’ উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জনকল্যাণে সব ভয়ভীতি, প্রলোভনের ঊর্ধ্বে থেকে দায়িত্ব পালনে জেলা প্রশাসকদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে ডিসিদের ২৪টি নির্দেশনাও দিয়েছেন সরকার প্রধান।

সরকারের নীতি-নির্ধারক ও জেলা প্রশাসকদের মধ্যে সামনা-সামনি মতবিনিময় এবং প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেওয়ার জন্য প্রতি বছর ডিসি সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে এ সম্মেলন হয়নি।

এবার সম্মেলনের প্রথম দিন (মঙ্গলবার) সন্ধ্যা ৬টায় ভার্চুয়ালি দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। দ্বিতীয় দিন বুধবার বিকেল সোয়া ৪টায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। ওইদিনই সন্ধ্যা ৬টায় সম্মেলনে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন।

এবার সম্মেলনে মোট ২৫টি অধিবেশন হয়। এর মধ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সঙ্গে কার্য-অধিবেশন ২১টি। এছাড়া একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, রাষ্ট্রপতির দিকনির্দেশনা গ্রহণ নিয়ে একটি, স্পিকারের শুভেচ্ছা বক্তব্য নিয়ে একটি ও প্রধান বিচারপতির শুভেচ্ছা বক্তব্য নিয়ে একটি অধিবেশন হয়।

সম্মেলনে মোট ৫৫টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগ অংশগ্রহণ করে। কার্য অধিবেশনগুলোতে মন্ত্রণালয় ও বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সিনিয়র সচিব ও সচিবরা উপস্থিত ছিলেন। কার্য অধিবেশনগুলোতে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

এবার জেলা প্রশাসক সম্মেলন উপলক্ষে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারদের কাছ থেকে ২৬৩টি প্রস্তাব পাওয়া যায়। কার্য অধিবেশনগুলোতে এসব প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এগুলো ছাড়াও ডিসিরা তাৎক্ষণিক বিভিন্ন প্রস্তাব তুলে ধরেন বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

আরএমএম/এমএইচআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]