শাবিপ্রবির ঘটনায় পুলিশের দায় থাকলে তদন্ত করে ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৯ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২২
ব্রিফিংয়ে কথা বলছেন পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি মো. হায়দার আলী খান

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অভিযোগের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পুলিশের হামলা ও হয়রানি। এ ব্যাপারে পুলিশ সদর দপ্তর বলছে, যদি তদন্তে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হয়রানি বা হামলার ব্যাপারে সত্যতা পাওয়া যায় তাহলে দায়ীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পুলিশ সপ্তাহ ২০২২ উপলক্ষে চতুর্থ দিনের অধিবেশন সম্পর্কে মিডিয়া ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি (অপারেশন্স মিডিয়া অ্যান্ড প্লানিং) মো. হায়দার আলী খান।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে স্থাপিত মিডিয়া সেন্টারে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

শাবিপ্রবির আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অর্থ দিয়ে সহায়তা করার অভিযোগে সাবেক কয়েকজন শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ সেখানে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাতদিন পর অনশন ভাঙিয়েছেন অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘আমিও ১০ হাজার টাকা দিলাম। পারলে পুলিশ আমাকে গ্রেফতার করুক।’ এমন পরিস্থিতিতে তিনিসহ আরও যারা আন্দোলনকারীদের অর্থসহায়তা করেছেন তাদেরও পুলিশ গ্রেফতার করবে কিনা জানতে চাইলে মো. হায়দার আলী খান বলেন, এটি অবশ্যই তদন্তের বিষয়। তদন্ত যারা করছেন, তদন্তে যদি অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

তাহলে কি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান বিব্রতকর পরিস্থিতি সম্পর্কে পুলিশ সদর দপ্তর অবগত নয়? সাংবাদিকের করা সম্পূরক আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখানে বিব্রতকর পরিস্থিতি কিনা তা পুলিশের বলার কিছু নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বতন্ত্র কিছু নিয়ম-কানুন আছে। তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনা বিভাগ রয়েছে। পুলিশ শুধু ল অ্যান্ড অর্ডার ম্যানেজমেন্ট, আইনশৃঙ্খলার বিষয়টি দেখে। তাও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনের আমন্ত্রণেই পুলিশ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত হয়।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, পুলিশ হামলা ও হয়রানি করেছে। সেটি পুলিশ সদর দপ্তর তদন্ত করছে কিনা বা কারও দায় দেখছেন কিনা জানতে চাইলে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, অবশ্যই পুলিশ সদর দপ্তর দেখছে, বিভাগীয় তদন্ত করছে। তদন্ত সাপেক্ষে যদি কোনো অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাহলে দায়ীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

টিটি/এমআরআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]