ই-নামজারিতে সারাদেশে চালু হচ্ছে অনলাইন উত্তরাধিকার সনদ যাচাই

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২১ পিএম, ২৯ জানুয়ারি ২০২২
ফাইল ছবি

সারাদেশে ই-নামজারিতে অনলাইন উত্তরাধিকার সনদ যাচাই ব্যবস্থা চালু করতে যাচ্ছে সরকার। এজন্য ই-নামজারি সিস্টেমের সঙ্গে অনলাইন উত্তরাধিকার সনদ প্রদান সিস্টেমের (প্রত্যয়ন) আন্তঃসংযোগ স্থাপন করা হয়েছে।

এই প্রেক্ষাপটে অনলাইন উত্তরাধিকার সনদ দেওয়ার সিস্টেমটি ইউনিয়ন, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনে চালুকরণের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে অনুরোধ জানিয়ে সম্প্রতি চিঠি পাঠিয়েছে ভূমি মন্ত্রণালয়।

ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান সই করা চিঠিতে বলা হয়, গত ৮ জানুয়ারি ঢাকা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সভাকক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় অনলাইন উত্তরাধিকার সনদ প্রদান ও যাচাই সংক্রান্ত ‘প্রত্যয়ন’ সিস্টেমটি (prottoyon.gov.bd) দেশব্যাপী চালু করার বিষয়ে কতিপয় নির্দেশনা দেওয়া হয়।

চিঠিতে বলা হয়, ই-নামজারি সিস্টেমে নাগরিকরা উত্তরাধিকার সূত্রে ই-নামজারির আবেদন করলে উত্তরাধিকার বা ওয়ারিশ সনদ বাধ্যতামূলকভাবে সংযুক্ত করতে হয়। এ গুরুত্বপূর্ণ সনদটি স্ক্যান করে সংযুক্ত করলে জালিয়াতির সম্ভাবনা থেকেই যায়। উত্তরাধিকার সনদ সংক্রান্ত সব ধরনের জালিয়াতি রোধকল্পে এবং এটি অনলাইনে যাচাইসহ তথ্য সংগ্রহ আরও নিরাপদ ও বিশ্বাসযোগ্য করতে ই-নামজারি সিস্টেমের (mutation land. gov.bd) সঙ্গে অনলাইনে উত্তরাধিকার সনদসহ সব ধরনের নাগরিক সনদ দেওয়ার জন্য একটি অনলাইন প্ল্যাটফরম ‘প্রত্যয়ন’ সিস্টেমের আন্তঃসংযোগ স্থাপন করা হয়েছে। এর ফলে এখন থেকে সহকারী কমিশনাররা (ভূমি) উত্তরাধিকার সূত্রে ই-নামজারির আবেদন নিষ্পত্তির সময় ‘ওয়ারিশ যাচাই’ ক্লিক করলেই প্রত্যয়ন সিস্টেম স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিষয়টি যাচাই করে তাৎক্ষণিকভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য ওয়ারিশ-সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় সঠিক তথ্য উপস্থাপন করবে।

‘প্রত্যয়ন’ সিস্টেমটি এটুআইয়ের সরকারিভাবে সার্ভিস ইনোভেশন ফান্ডের আওতায় তৈরি করা হয়েছে এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে এটি সফলভাবে চলছে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

‘প্রত্যয়ন’ সিস্টেমটি দেশব্যাপী সব ইউনিয়ন, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনে চালুকরণের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে অনুরোধ জানিয়ে চিঠিতে বলা হয়, এক্ষেত্রে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের সব উদ্যোক্তা ও সব ইউনিয়ন পরিষদ সচিবকে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মো. জাহিদ হোসেন পনির (মোবাইল নম্বর-০১৭১২৯১৫১৯৪) ফোকাল পয়েন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

আরএমএম/এমআরআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]