জলবায়ু পরিবর্তন সমস্যা সমাধানে বৈশ্বিক উদ্যোগ দরকার: রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন একটি বৈশ্বিক সমস্যা এবং এটির সমাধানে বৈশ্বিক উদ্যোগ দরকার। উন্নত বিশ্বকে অবশ্যই গ্রিন হাউজ গ্যাস নিঃসরণ কমানো উচিত। একই সঙ্গে জলবায়ু সমস্যা মোকাবেলায় তাদের যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে এবং সেটি এখনই করতে হবে।

বুধবার (১৮ মে) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা (ডব্লিওএমও) এবং জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এক সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

তিন দিনব্যাপী (১৮ - ২০ মে) ‘দক্ষিণ এশিয়ায় জলবায়ু পরিবর্তন ও খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন’ শীর্ষক এই সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে লিখিত বক্তব্য দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

jagonews24

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ভবিষ্যৎ প্রজন্মের বসবাসের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করছে। সম্প্রতি মুজিববর্ষ উপলক্ষে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সারাদেশে এক কোটি গাছ রোপণ কর্মসূচি সফলভাবে বাস্তবায়ন করেছে।

সরকারের গৃহীত ডেল্টা পরিকল্পনা নিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের ক্ষতি কমিয়ে আনতে সরকার এরই মধ্যে ডেল্টা প্ল্যান- ২১০০ প্রণয়ন করেছে।

‘একুশ শতকের শেষ পর্যন্ত জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর দিকসমূহ থেকে বাংলাদেশ নামক ব-দ্বীপকে রক্ষা করতে এই পরিকল্পনা একটি দীর্ঘস্থায়ী ভিশন হিসেবে কাজ করবে।’

jagonews24

সম্মেলনে ঢাবির উপাচার্য মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান বলেন, এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে, জলবায়ু পরিবর্তনের ধ্বংসাত্মক প্রভাব থেকে পৃথিবীর কোনো অংশই মুক্ত নয়। এর মধ্যে রয়েছে বৈশ্বিক উষ্ণতা ও সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি এবং বজ্রপাতের আধিক্য ইত্যাদি। এসব পরোক্ষভাবে বিশ্বব্যাপী কৃষির উৎপাদনে প্রভাব ফেলছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাবির উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল ও বাংলাদেশে নিযুক্ত এফএওর প্রতিনিধি রবার্ট ডগলাস সিম্পসন।

আল সাদী ভূঁইয়া /এমপি/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]