‘যানজটে ঢাকা-চট্টগ্রামে বছরে ক্ষতি ৫০ হাজার কোটি টাকা’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১০ পিএম, ২২ মে ২০২২
সড়ক দুর্ঘটনা নিরসন কল্পে করণীয় শীর্ষক সভা

যানজটে শুধু ঢাকা ও চট্টগ্রামেই প্রতিবছর ৫০ হাজার কোটি টাকারও বেশি ক্ষতি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের (নিসআ) যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ মেহেদি দীপ্ত। যানজটে শুধু সময় না, আর্থিকভাবেও ক্ষতি সাধন হচ্ছে বলে জানান তিনি।

শনিবার (২১ মে) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির স্বাধীনতা হলে জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক নিরাপদ সড়ক সপ্তাহ-২০২২ উপলক্ষে ‘রোড সেফটি অ্যালায়েন্স বাংলাদেশ’ আয়োজিত ‘সড়ক দুর্ঘটনা নিরসন কল্পে করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব তথ্য জানান। নিরাপদ সড়ক সপ্তাহের এবারের প্রতিপাদ্য ‘শহর ও জনবহুল এলাকায় গতিসীমা ৩০ কি.মি/ঘণ্টায় নামিয়ে আনা’।

সভায় আব্দুল্লাহ মেহেদি দীপ্ত বলেন, দুর্ঘটনার পেছনে রয়েছে মূলত প্রশাসনিক দুর্বলতা, যত্রতত্র অব্যবস্থাপনা। ঢাকার মেট্রো রেলসহ সারাদেশে কোনো প্রকল্পই বর্তমানে সুষ্ঠু পরিকল্পনায় সম্পন্ন হচ্ছে না। এতে জনদুর্ভোগ কমার বদলে যানজট ও সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে যাচ্ছে।

এসময় রোড সেইফটি অ্যালায়েন্স বাংলাদেশ’র নির্বাহী পরিচালক আব্দুল ওয়াহেদ বলেন, অতিরিক্ত গতিসীমার কারণে দেশে যেভাবে সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে চলেছে, তা নিয়ন্ত্রণের জন্য জনবসতিপূর্ণ এলাকার সড়কে সর্বোচ্চ ৩০কি.মি/ঘণ্টায় গতিবেগ কার্যকর করা জরুরি।

তিনি বলেন, নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নে আমরা বেশকিছু সংগঠন একত্রিত হয়েছি।সরকার, প্রশাসনসহ সবাই এই উদ্যোগের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে কাজ করতে চাই। একসঙ্গে কাজ করলে আমরা অবশ্যই এই সেক্টরে দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা সম্ভব।

আয়োজকরা জানান, কয়েকটি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ‘রোড সেফটি অ্যালায়েন্স বাংলাদেশ’ প্রথমবারের মতো দেশের একমাত্র সংগঠন হিসেবে আন্তর্জাতিক সড়ক সপ্তাহে মাঠ পর্যায় থেকে কাজ করেছে। এ কাজের জন্য জাতিসংঘ এরই মধ্যে তাদের অভিনন্দন জানিয়েছে।

সভায় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলীসহ কয়েকজন সাবেক সরকারি কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

এএএম/ইএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]