প্রীতিলতার রক্ত বৃথা যায়নি: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাবি
প্রকাশিত: ১০:১৬ পিএম, ২৩ মে ২০২২

সুভাসচন্দ্র বোস, তিতুমীর, সূর্যসেন, প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার। কারো রক্তই বৃথা যায়নি। বরং তাদের রক্ত আমাদের স্বাধীনতাকে তরান্বিত করেছে।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ সোমবার (২৩ মে) বিকেলে জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল অডিটরিয়ামে ‌‘প্রীতিলতা: শতবর্ষ পরেও এত প্রাসঙ্গিক’ শীর্ষক সেমিনার ও আলোচনা অনুষ্ঠানে এসব মন্তব্য করেছেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের ৮০% ছিলেন ৮ থেকে ২৫ বছর বয়সী। কারণ, এখন যৌবন যার যুদ্ধে যাবার সময় তার। প্রীতিলতাও ঠিক এমনই একটা বয়সে নিজের জীবন দিয়েছিলেন।

তিনি উল্লেখ করেন, দেশকে ভালোবাসা, মেধাবি ছাত্র হওয়া, বড় ব্যবসায়ী হওয়া, রাষ্ট্র পরিচালনা করা, এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো দেশকে ভালোবাসা। প্রীতিলতা মাস্টারদা সূর্যসেনের হাত থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন। পলাশীর পরাজয়ের পর স্বাধীনতার জন্য প্রথম সশস্ত্র সংগ্রাম করেন সূর্যসেন। চীনের মাও সেতুং ও রাশিয়ার ভ্লাদিমির ইলিচ লেলিন বিপ্লব করেই তাদের দেশকে স্বাধীন করেছিলেন। আজকে তারা বিশ্বের বড় পরাশক্তি।

এ সময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবুল মনসুর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপচার্য এবং বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সভাপতি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বক্তব্য দেন।

আল সাদী ভূঁইয়া/এমএইচআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]