ভারত-রাশিয়া-অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে গম কেনার প্রস্তাব

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০২ পিএম, ২৪ মে ২০২২
ফাইল ছবি

ভারত গম রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও প্রতিবেশী দেশ হিসেবে বাংলাদেশ এর আওতায় নেই। এ প্রেক্ষাপটে ভারত থেকে গম কেনার প্রস্তাব রয়েছে। শুধু ভারতই নয়, রাশিয়া অস্ট্রেলিয়াসহ আরও কয়েকটি দেশ থেকে গম কেনার প্রস্তাব রয়েছে বলে জানিয়েছেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

সম্প্রতি সময়ে দেশে গম থেকে প্রস্তুত করা আটা ও ময়দার দাম অনেক বেড়ে গেছে। কেজিপ্রতি আটার দাম ৫০ টাকা এবং ময়দার দাম ৭০ টাকায় গিয়ে ঠেকেছে।

খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, দেশে বার্ষিক গমের চাহিদা ৭৫ লাখ টন। দেশে উৎপাদিত হয় ১১ লাখ টন। বাকি ৬৪ লাখ টন গম আমদানি করা হয়। আমদানির একটি বড় অংশ আসে রাশিয়া ও ইউক্রেন থেকে। কিন্তু যুদ্ধের কারণে এ দুটি দেশ থেকে এখন আমদানি বন্ধ রয়েছে।

খাদ্য মন্ত্রণালয় অতিরিক্ত সচিব (সংগ্রহ ও সরবরাহ অনুবিভাগ) মো. মজিবর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ‘ভারত থেকে গম আনার বিষয়ে আমাদের বিভিন্ন পদক্ষেপ রয়েছে। জি-টু-জি (সরকার-টু-সরকার) পদ্ধতিতে সেখান থেকে গম আনতে সেখানে (ভারত) আমাদের হাইকমিশনারকেও আমরা চিঠি দিয়েছি, তাকে উদ্যোগ গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে অবশ্যই পজেটিভ।’

তিনি বলেন, ‘ইতিমধ্যে ভারত থেকে দুটি জাহাজ এসেছে, প্রতিটিতে ৫০ হাজার টনের মতো গম রয়েছে। ভারত থেকে গম আনার বিষয়ে কোনো প্রতিবন্ধকতা নেই, ভারত সেটা জানিয়েছে। পত্রপত্রিকায় সে কথা এসেছেও। ভারতের নিষেধাজ্ঞা প্রতিবেশী দেশের জন্য প্রযোজ্য নয়।’

‘বাংলাদেশের গম রপ্তানি করার জন্য বিভিন্ন দেশ আমাদেরকে প্রস্তাব দিচ্ছে। ভারত ছাড়াও অস্ট্রেলিয়া রাশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে প্রস্তাব এসেছে।’

অতিরিক্ত সচিব বলেন, ‘কোনো দেশ প্রস্তাব দিলে যে আমরা সেখান থেকে গম নিয়ে আসব বিষয়টা তেমন না। কারণ দামের একটি বিষয় আছে। এছাড়া মান, চাহিদা সবকিছু বিবেচনা করে আমদানির সিদ্ধান্ত নিতে হয়।’

গমের পর্যাপ্ত মজুত আছে জানিয়ে মজিবর রহমান বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরে আসা একটি জাহাজ থেকে এরইমধ্যে গম খালাস শুরু হয়েছে, আরেকটি থেকে দু'একদিনের মধ্যেই খালাস শুরু হবে। তাই গম নিয়ে শঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

‘গম আমদানির জন্য আমাদের প্রচুর প্রস্তাব আছে আমরা যে কোনো সময় প্রয়োজন অনুযায়ী গম আমদানি করতে পারব। আমাদের গম আমদানি চলমান আছে এবং এটা অব্যাহত থাকবে।’

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সংগ্রহ বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানান, ন্যাশনাল ফেডারেশন অব ফারমার্স প্রকিউরমেন্ট প্রসেসিং অ্যান্ড রিটেইলিং কো–অপারেটিভস অব ইন্ডিয়া (এনএসিওএফ) সম্প্রতি এক চিঠিতে জানিয়েছে, তারা বাংলাদেশে গম রপ্তানি করতে আগ্রহী। মূলত রাষ্ট্রদূতকে এসব প্রস্তাবের বিষয়ে খোঁজ-খবর নিয়ে বলা হয়েছে।

আরএমএম/এসএইচএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]