দম্পতির হজের টাকা নিলো লাইসেন্সহীন এজেন্সি, ব্যবস্থা নিতে চিঠি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৩৬ এএম, ১৬ জুন ২০২২

হজ কার্যক্রম পরিচালনার অনুমোদন বা লাইসেন্স না থাকার পরও এক হজ গমনেচ্ছু ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে একটি এজেন্সির বিরুদ্ধে।

লাইসেন্সবিহীন ‘কৃষিবিদ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস লিমিটেড’ নামের ওই এজেন্সির বিরুদ্ধে হজের জন্য প্রায় ১২ লাখ টাকা নেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন রাজধানীর বাড্ডা এলাকার বাসিন্দা মো. হাফিজুর রহমান।

কৃষিবিদ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস পরবর্তী সময়ে নিবন্ধিত হজ এজেন্সি বন্ধু এয়ার ইন্টারন্যাশনালের মাধ্যমে প্রাক-নিবন্ধন করেন।

আগামী বছর তাদের স্বামী-স্ত্রীর বয়স ৬৫ বছর পেরিয়ে যাবে উল্লেখ করে হাফিজুর রহমান এজেন্সিটির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন। তার অভিযোগের ভিত্তিতে কৃষিবিদ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিবের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়। একইসঙ্গে প্রাক-নিবন্ধন সম্পন্ন করে দেওয়া এজেন্সি বন্ধু এয়ার ইন্টারন্যাশনালকে (হজ লাইসেন্স নং-৩১৮) কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

জননিরাপত্তা বিভাগে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, উত্তর বাড্ডার বাসিন্দা হাফিজুর রহমান সস্ত্রীক হজ পালনের জন্য কৃষিবিদ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলসকে সর্বমোট ১১ লাখ ৮০ হাজার টাকা দিলেও হজে না নেওয়া সংক্রান্ত অভিযোগ দাখিল করেছেন। কিন্তু ওই এজেন্সির মন্ত্রণালয়ে কোনো হজ লাইসেন্স বিদ্যমান নেই।

এ অবস্থার কৃষিবিদ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলসের বিরুদ্ধে হজ লাইসেন্স না থাকা সত্ত্বেও হজে গমনেচ্ছু ব্যক্তিদের কাছ থেকে টাকা গ্রহণ সংক্রান্ত উত্থাপিত অভিযোগটি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার মাধ্যমে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে জননিরাপত্তা বিভাগকে অনুরোধ জানানো হয় চিঠিতে।

অন্যদিকে এ ধরনের কার্যক্রম হজযাত্রীর সঙ্গে প্রতারণার সামিল উল্লেখ করে ‘হজ ও ওমরাহ ব্যবস্থাপনা আইন, ২০২১’ এর ১৩ ধারা অনুযায়ী কেন প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না- তা জানিয়ে আগামী তিনদিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বন্ধু এয়ার ইন্টারন্যাশনালকে নোটিশ দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

হজ নিয়ে প্রতারণার বিষয়ে সতর্কীকরণ:
হজ নিয়ে প্রতারণার বিষয়ে সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তিতে ধর্ম মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২০২২ সরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীর কোনো কোটা খালি নেই এবং অন্য কোনো উপায়ে হজযাত্রী/কোনো ব্যক্তির অনুকূলে ভিসা ইস্যু করানোরও কোনো সুযোগ নেই। কতিপয় অসাধু ব্যক্তি প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে সহজ-সরল ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের হজে পাঠানোর মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে মর্মে জানা যায়। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সতর্ক করা হলো।

সৌদি আরবে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৮ জুলাই হজ অনুষ্ঠিত হবে। এবার সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীর কোটা ৪ হাজার জন। অন্যদিকে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় কোটা ৫৩ হাজার ৫৮৫ জন।

হজযাত্রীদের সৌদি আরবে যাওয়ার ফ্লাইট গত ৫ জুন শুরু হয়েছে। হজযাত্রার শেষ ফ্লাইট ৩ জুলাই। হজ শেষে ফিরতি ফ্লাইট শুরু আগামী ১৪ জুলাই, যা শেষ হবে ৪ আগস্ট।

সর্বশেষ গতকাল বুধবার পর্যন্ত ৩৪টি ফ্লাইটে মোট ১৩ হাজার ২২৯ জন হজযাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছেছেন।

আরএমএম/এমকেআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected]ail.com ঠিকানায়।