বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি: গাবতলীতে চাপ নেই যাত্রীদের

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১০ পিএম, ২৫ জুন ২০২২

আর মাত্র দুই সপ্তাহ পর ঈদুল আজহা। শুক্রবার (২৪ জুন) থেকে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। তবে শনিবার রাজধানীর গবতলীতে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রিতে ক্রেতাদের চাপ নেই। অনেক কাউন্টারে টিকিট বিক্রেতারা অলস সময় পার করছেন।

শনিবার (২৫ জুন) গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়।

গাবতলী বাস টার্মিনালের হানিফ কাউন্টারের টিকিট বিক্রেতা মো. জাকির মোল্লা জাগো নিউজকে বলেন, গতকাল (শুক্রবার) থেকে ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। ঈদের আগের দিন পর্যন্ত বিশেষ টিকিট বিক্রি করা হবে। অগ্রিম টিকিট বিক্রিতে ক্রেতাদের চাপ নেই। গতকাল থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত গাবতলীতে কয়েকটি টিকিট বিক্রি হয়েছে। আগামী দুই-তিন পর বিশেষ টিকিট বিক্রি বাড়তে পারে।

পরিবার নিয়ে পাবনা নিজ বাড়িতে ঈদ করবেন বেসরকারি চাকরিজীবী সাজ্জাদ সরকার। এজন্য আগেই গাবতলী থেকে টিকিট কিনেছেন তিনি। সাজ্জাদ বলেন, আগামী ৭ জুলাই পরিবার নিয়ে বাড়ি যাবো। ঝামেলা এড়াতে আগেই টিকিট কিনলাম। তবে স্বাভাবিক সময়ের চাইতে টিকিটের দাম কিছুটা বেশি নেওয়া হয়েছে।

HANIF-2.jpg

শুক্রবার ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হলেও এ পর্যন্ত পাঁচটি টিকিট বিক্রি করেছে দক্ষিণাঞ্চলে চলাচল করা শ্যামলী পরিবহন। এ পরিবহনটির কাউন্টারম্যান ইমরান জাগো নিউজকে বলেন, এখনো তেমনভাবে অগ্রিম টিকিট কেনা শুরু হয়নি। গতকাল (শুক্রবার) কয়েকটি টিকিট বিক্রি হয়েছে। তবে আজ শনিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত একটি টিকিটও বিক্রি হয়নি।

গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখা যায়, বেশির ভাগ কাউন্টারে এখনো ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়নি। যাত্রীর চাপ না থাকায় অনেক আরও দুই থেকে তিনদিন পর তারা ঈদের বিশেষ টিকিট বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এসব কাউন্টারে স্বাভাবিক সময়ের মতো কম সংখ্যক গাড়ি ছাড়ছে। দূরপাল্লা রোডে ছেড়ে যাওয়া অধিকাংশ গাড়িতে সিট খালি রেখে যাত্রা করছে বলে দাবি মালিকদের।

এমএইচএম/আরএডি/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]