এমপি হারুনের অধিকার ক্ষুণ্নের নোটিশ গ্রহণ করেননি স্পিকার

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:১৪ পিএম, ২৭ জুন ২০২২

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বিএনপি নেতা মো. হারুনুর রশীদের বিশেষ অধিকার ক্ষুণ্নের নোটিশ গ্রহণ করেননি জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

সোমবার (২৭ জুন) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে এ নোটিশ গ্রহণ না করার ঘোষণা দেন স্পিকার।

এর আগে গত ২৩ জুন হারুনুর রশীদ তার নির্বাচনী এলাকার নবনির্মিত ও নির্মাণাধীন বিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা নিয়ে বিশেষ অধিকার ক্ষুণ্নের নোটিশ দেন। ওই নোটিশ নিয়ে পরে তিনি দুইদিন পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে স্পিকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। ওই সময় স্পিকার জানান, তার নোটিশটি পরীক্ষা-নিরিক্ষা করা হচ্ছে। কয়েকদিনের মধ্যেই তা সংসদে জানিয়ে দেওয়া হবে। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার হারুনুর রশীদ তার নোটিশটি সংসদ অধিবেশনে উত্থাপন করেন।

সংসদে স্পিকার নোটিশ প্রসঙ্গে জানান, গত ২৩ জুন সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদের কাছ থেকে একটি নোটিশপ্রাপ্ত হয়েছি। বিশেষ অধিকার ক্ষুণ্নের নোটিশ। নোটিশটি এরই মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে। নোটিশটি সংবিধানের ৭৮ অনুচ্ছেদ এবং সংসদের কার্যপ্রণালীবিধির ১৬৫ এবং ১৬৬ (৩) এর আলোকে বিশেষ অধিকার সংক্রান্ত না হওয়ায় গ্রহণ করা গেলো না।

এর আগে হারুনুর রশীদ তার নোটিশে বলেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী আমার নির্বাচনী এলাকা চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় অবস্থিত ‘গণতা সহকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে গত ২৪ এপ্রিল চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর) ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (নাচোল, ভোলাহাট ও গমন্তাপুর) নির্বাচনী এলাকায় নবনির্মিত ও নির্মাণাধীন মোট ৬৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তরও শুভ উদ্বোধনের ফলক উম্মোচন করেন। যেখানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ) নির্বাচনী এলাকার স্কুলগুলো বাদ থাকে।

নোটিশে তিনি বলেন, এর আগে সংসদ সদস্য থাকাকালীন সময় আমার নির্বাচনী এলাকায় বহু সরকারি-বেসরকারি প্রাইমারী স্কুল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও শুভ উদ্বোধন করি। এছাড়া নবম ও দশম সংসদের স্থানীয় সংসদ সদস্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও শুভ উদ্বোধন করেন। এ ছাড়া খোঁজ নিয়ে জানতে পারি সারাদেশেই স্থানীয় সংসদ সদস্যরা ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও শুভ উদ্বোধন করেন। কিন্তু আমার নির্বাচনী এলাকার নবনির্মিত ও নির্মাণাধীন ৬০টি বিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর ও শুভ উদ্বোধন যেন না করি সে বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্তকর্তার কাছে নির্দেশনা দেন। যা বাংলাদেশ সংবিধানের পদের শপথ (বা ঘোষণা) অনুচ্ছেদের (আমি ভীতি বা অনুগ্রহ, অনুরাগ বা বিরাগের বশবর্তী না হইয়া সবার প্রতি আইন অনুযায়ী যথাবিহীত আচরণ করিব) শপথ ভঙ্গের শামিল। এহেন কর্মকাণ্ডে আমার অধিকার ক্ষুণ্ন হয়েছে।

সর্বশেষ নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান চলতি সংসদে বিশেষ অধিকার ক্ষুণ্নের নোটিশ দিয়েছিলেন। কিন্তু সেটাও গ্রহণ করা হয়নি।

এইচএস/এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]