বিএনপিকে বিরোধীদল বলে দেওয়া বক্তব্য এক্সপাঞ্জের দাবি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৪ পিএম, ২৭ জুন ২০২২

জাতীয় সংসদে বিএনপিকে বিরোধীদল আখ্যায়িত করে দেওয়া সংসদ সদস্যদের (এমপি) বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করার দাবি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা। তিনি বলেন, এ সংসদে আমরাই (জাপা) বৃহত্তর বিরোধীদল। এখানে কোনো ভুল নেই।

সোমবার (২৭ জুন) জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এ দাবি জানান তিনি।

মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, সংসদে অনেক সংসদ সদস্য বিএনপির সমালোচনা করতে গিয়ে বিএনপিকে বিরোধীদল বলেন। সংসদে আমরা বৃহত্তর বিরোধীদল। আমরা বিরোধীদল এখানে কোনো ভুল নেই। সংসদ সদস্যরা বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বিরোধীদল বলেছেন তা এক্সপাঞ্জ করার অনুরোধ করছি।

পদ্মা সেতু নির্মাণের প্রসঙ্গ টেনে জাপা এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী অনেক চেষ্টা করে আজকে এ সেতুটি দাঁড় করিয়েছেন। আমার মনে হয় সেতুটি উনি (প্রধানমন্ত্রী) সম্পন্ন করতে না পারতেন তাহলে উনি একটা নিজের ক্ষতি নিজেই করে বসতেন। আমি স্পিকার আপনার মাধ্যমে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি প্রধানমন্ত্রীর কাছে। এরকম একটি সম্ভাবনা ওনার মধ্যে আমি দেখেছিলাম উনার মধ্যে এনি হাউ এটা করতে হবে। উনি এটা করেছেন।

পদ্মা সেতু নির্মাণ নিয়ে সমালোচনাকারীদের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, যারা পরের ভালো দেখতে পারে না। পরশ্রীকাতরতা যাদের মধ্যে আছে। তারা বলেছেন এটা করতে পারবেন না। এগুলো দেখার সময় উনার (প্রধানমন্ত্রীর) নেই। উনি যেভাবে দেশের উন্নতি করছেন। আরো করবেন। আমরা তা বিশ্বাস করি।

কণ্ঠ শিল্পী ও ফোক গানের সম্রাজ্ঞী সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের একটি গানের কলি উল্লেখ করে রাঙ্গা বলেন, বুকটা ফাইট্টা যায়। গানের মতো ওদের বুকটা ফাইট্টা যায়। ওই জন্য একবার বলে ভেঙে পড়বে। একবার বলে এ হবে। একবার বলে ওই হবে। কালকে (গতকাল) আমাদের সংসদ সদস্য শাজাহান খান বলেছেন- না হয় নৌকায় যাবেন। নৌকায় আবার কেমনে যায়। এটা তো আরেকটি বিপদ। তাহলে কিসে যাবে।

দুর্নীতিবাজদের প্রশ্নে তিনি বলেন, একটি মানুষের খেতে-পরতে কতকুটু সুযোগ-সুবিধা লাগে সেটা হওয়ার পর কেউ দুর্নীতি করলে তার সঙ্গে সমঝোতা করার কিছু আছে বলেও মনে করি না।

তিনি বলেন, দুর্নীতিবাজরা আমলা হোক বা রাজনীতিবিদ হোক বা অন্য কেউ হোক তারা নিজেরাও জানে না তাদের কত টাকা আছে। তাদের সন্তানেরা উশৃঙ্খল হয়ে গেছে। খোঁজ নিয়ে দেখেন যেসব এমপি সাহেবরা এর সঙ্গে জড়িত তাদের একটি সন্তানও মানুষ হয়নি।

এইচএস/এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]