কোতোয়ালিতে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে হত্যাচেষ্টা, হামলাকারী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৮:৫৫ এএম, ২৯ জুন ২০২২
প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালি থানাধীন খলিফাপট্টি এলাকায় উত্তম ধর মিঠু (৩০) নামের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। হামলাকারীদের মধ্যে হাতেনাতে আটক একজনের নাম বিজয় (২৮)। মঙ্গলবার দিনগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় স্থানীয় নৈশপ্রহরী রুবেল ওই হামলাকারীকে আটকে ফেললে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী তাকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে।

আটক হামলাকারীর বাড়ি কোতোয়ালি থানাধীন পাথরঘাটা এলাকায় বলে জানা গেছে। অন্যদিকে আহত মিঠু বাঁশখালী থানাধীন জলদী বণিক পাড়ার মৃত সুধীর ধরের ছেলে। তিনি খলিফাপট্টি এলাকার বিহারী ভবনের চতুর্থ তলায় পরিবারসহ ভাড়া থাকতেন।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে চান্দগাঁও থেকে নিজের স্বর্ণের দোকান বন্ধ করে ফেরার পথে খলিফাপট্টির নিজ বাসার সামনে পৌঁছালে তিন যুবক মিঠুকে ছুরিকাঘাত করে দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করে। ঘটনা টের পেয়ে খলিফাপট্টির নৈশপ্রহরী রুবেল হামলাকারীদের একজনকে ঝাপটে ধরেন। পরে এলাকাবাসী তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

আহত মিঠুকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর আটক ব্যক্তি নিজেকে নগরীর সিটি কলেজের ইমন গ্রুপের সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়েছে বলে জানা গেছে।

নৈশপ্রহরী রুবেল বলেন, আমি এলাকার নিরাপত্তায় কাজ করছিলাম। হঠাৎ তিনজনকে দৌঁড়ে পালিয়ে যেতে দেখতে পাই। তাদের একজনকে আমি ঝাপটে ধরি। পরে পুলিশ এসে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে ঘটনাস্থলে থাকা কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনজুরুল ইসলাম রাতে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, খলিফাপট্টিতে মিঠু নামের একজন ছুরিকাহত হয়েছেন। তার পায়ে বেশ কয়েকটি স্টেপিং হয়েছে। তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে দ্রুত চমেক হাসপাতালে নিয়ে যায়। তার প্রচুর রক্তক্ষরণ হলেও তিনি আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

তিনি আরও জানান, হত্যাচেষ্টার কারণ সম্পর্কে এখনো জানা যায়নি। আটক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ইকবাল হোসেন/এমকেআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]