অনুমতি ছাড়াই বিভিন্নজনের নামে সিমকার্ড উত্তোলন করতেন তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০৯ পিএম, ২৯ জুন ২০২২
উদ্ধার সিমকার্ড

গ্রাহকের অনুমতি ছাড়াই তার জাতীয় পরিচয়পত্র ও ফিঙ্গার প্রিন্ট দিয়ে মোবাইল সিম উত্তোলন করে চড়া দামে বিক্রি করতো একটি চক্র। পরে এসব মোবাইল সিম প্রতারণাসহ নানা কাজে ব্যবহার করা হতো। এমন অভিযোগে ওই প্রতারক চক্রের প্রধানসহ তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ।

বুধবার (২৯ জুন) রাতে গোয়েন্দা সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। ওই বিভাগের সোশ্যাল মিডিয়া ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিমের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মো. মনিরুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

গ্রেফতাররা হলেন- লিমন, সুমন আহম্মেদ ও সোহেল আহম্মেদ। এসময় তাদের কাছ থেকে ৫১০টি সক্রিয় মোবাইল সিমকার্ড জব্দ করা হয়। সিমকার্ড গুলো বাংলালিংক, রবি ও এয়ারটেল কোম্পানির।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় সবুজবাগ থানার দক্ষিণগাঁও এলাকায় প্রতারক চক্রের কয়েকজন সদস্য বিভিন্ন ব্যক্তির নামে অ্যাকটিভ করা মোবাইল সিমকার্ড ক্রয়-বিক্রয় করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে ওই এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এসময় বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানির সক্রিয় ৫১০টি সিম কার্ডসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা জানান, বিভিন্ন মোবাইল সিম কোম্পানিতে চাকরির সুবাধে সু-কৌশলে গ্রাহকের অনুমতি ছাড়ায় জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য ও ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে সিমকার্ড উত্তোলন করতেন তারা। এরপর উত্তোলন করা সিমকার্ড প্রতারণার জন্য চড়া দামে বিক্রি করতেন।

গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে সবুজবাগ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে বলেও জানান গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা।

টিটি/কেএসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]