৪২ ঘণ্টা অপেক্ষার পর ‘সোনার হরিণ’ পেলেন কাউছার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:২৬ এএম, ০৫ জুলাই ২০২২

ঈদযাত্রায় ট্রেনের অগ্রিম টিকিট পেতে রোববার (৩ জুলাই) দুপুর ২ টায় লাইনে দাঁড়ান মো. আবু কাউছার। টিকিট না পেয়ে সোমবার (৪ জুলাই) লাইন ছেড়ে যাননি তিনি। অবশেষে ৪২ ঘণ্টা পর মঙ্গলবার (৫ জুলাই) বহু প্রত্যাশিত ‘সোনার হরিণ’ পেলেন এ যুবক। দীর্ঘ অপেক্ষার পরে টিকিট পেয়ে খুশি কাউছার।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) সকালে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে মো. আবু কাউছারের সঙ্গে কথা হয় জাগো নিউজের। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, রোববার দুপুর দুইটায় লাইনে এসে দাঁড়াই। কিন্তু সোমবার টিকিট পাননি। সোমবার সকালে যখন কাউন্টারে আসি তখনই টিকিট বিক্রি বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ ৪২ অপেক্ষার পর আজ টিকিট পেলাম।

তিনি আরও বলেন, স্ত্রী ও দুই ছেলে-মেয়ে নিয়ে রাজধানীর শনিরআখড়ায় থাকেন। গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরের হিলিতে বাবা-মা ও ভাই-বোনদের সঙ্গে ঈদুল আজহা উদযাপন করতে পরিবার নিয়ে যাবেন। তাই ট্রেনের অগ্রিম টিকিট পেতে রোববার দুপুরে লাইনে দাঁড়ান। সোমবার টিকিট বিক্রি শুরু হলেও কাউন্টারে আসার পরপরই শেষ হয়ে যায় দিনাজপুর হয়ে পঞ্চগড়গামী একতা এক্সপ্রেসের টিকিট। ফলে মঙ্গলবার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় তাকে। প্রায় ৪২ ঘণ্টা অপেক্ষার পর সকালে টিকিট পান।

দীর্ঘ সময়ের লাইনে অপেক্ষা পর টিকিট পাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, প্রায় দুই দিন ধরে লাইনেই দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে। খাওয়া-দাওয়া স্টেশনের পাশে হোটেলেই করেছি লাইনে বসে ঘুমিয়ে গল্প গুজব করে সময় পার করেছি।

অনলাইনে টিকিট কাটার বিষয়ে কাউছার বলেন, অনলাইনে অধিকাংশ সময় সার্ভারে সমস্যা দেখা দেয়। বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেছি, কিন্তু টিকিট কাটতে পারেনি।

অন্যদিকে, সকাল থেকে কমলাপুরে কাউন্টারে ভিড় থাকলেও বেশ কয়েকটি কাউন্টারে এখন টিকিট রয়েছে। তবে টিকিটপ্রত্যাশী কোনো যাত্রী নেই সেই সব কাউন্টারগুলোতে।

আরএসএম/এমএএইচ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।