রাজধানীতে দুই গৃহবধূ, এক রিকশাচালকের মরদেহ উদ্ধার

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫০ পিএম, ০৮ আগস্ট ২০২২
ফাইল ছবি

রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় দুই গৃহবধূসহ এক রিকশাচালকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার (৭ আগস্ট) রাত ও সোমবার (৮ আগস্ট) সকালে এসব মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এরা হলেন সবুজ বাগ এলাকার ঝর্না আক্তার (২৫), মুগদার রিকশাচালক মো. শুভ মিয়া (২৮) ও হাতিরঝিল এলাকার মোছা. তাহমিনা আক্তার (২২)।

সবুজবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোছা. রবিনা আউয়াল জানান, খবর পেয়ে মাদারটেক উত্তরপাড়ার একটি বাসা থেকে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ঝর্না আক্তারের স্বজনদের বরাত দিয়ে এসআই জানান, ঝর্নার স্বামী ইকবাল হোসেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। তার ২১ দিন বয়সী এক সন্তান রয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

এদকে মুগদা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুল মান্নান জানান, ৯৯৯- এ ফোন পেয়ে মুগদার দানবীর গলির একটি বাসা থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

অন্যদিকে হাতিরঝিলের মগবাজার গাবতলা এলাকার একটি বাসা থেকে রোববার রাতে মোসাম্মৎ তাহমিনা আক্তার (২২) নামের এক নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে রোববার রাত সাড়ে ৩টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তাহমিনা আক্তারের স্বামী মোহাম্মদ জাহিদ হোসেনের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোনো কথা না বলে এড়িয়ে যান। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলার সদর উপজেলার ছোট শাহাতলী গ্রামে। বর্তমানে মগবাজারের গাবতলা এলাকায় একটি বাসায় থাকতেন তারা।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে জানানো হয়েছে।

কাজী আল আমিন/এমআইএইচএস/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।