আঙ্কারায় বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৩৮ পিএম, ০৯ আগস্ট ২০২২

তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস। সোমবার (৮ আগস্ট) রাষ্ট্রদূত মস্য়ূদ মান্নান বঙ্গমাতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনটির আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেন।

মূল অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন তেলওয়াত, বঙ্গমাতা ও বঙ্গবন্ধু পরিবার, স্বাধীনতা যুদ্ধের সব শহীদের আত্মার মাগফিরাত এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন রাষ্ট্রদূত মস্য়ূদ মান্নান এবং প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন দূতাবাসের মিনিস্টার ও মিশন উপ-প্রধান শাহনাজ গাজী।

বাণী পাঠের পর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া বঙ্গমাতার কর্মময় জীবনের উপর নির্মিত ভিডিও প্রদর্শন হয়।

অনুষ্ঠানে প্রবাসী বাংলাদেশি ছাড়াও রিপাবলিক অব কংগো, ডোমেনিকান রিপাবলিক, ভারত, নাইজেরিয়া, তাজিকিস্তান ও মিশরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পর্বে শিশুদের মধ্যে ছড়া পাঠ ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এবং তাদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করেন রাষ্ট্রদূত।

jagonews24

সিলেটের বানভাসি মানুষদের জন্য সাহায্য প্রেরণ করায় আংকারায় শেখ রাসেল শিশু কর্নারের শিশু কিশোর সদস্যদের হাতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে পাওয়া ধন্যবাদ চিঠি প্রদান করেন রাষ্ট্রদূত।

পরে বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকীর প্রতিপাদ্য বিষয় ‘মহীয়সী বঙ্গমাতার চেতনা, অদম্য বাংলাদেশের প্রেরণার’ উপর বক্তব্য দেন রাষ্ট্রদূত। বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের অবদান ও আত্মত্যাগের কথা এবং বঙ্গবন্ধু পরিবারের গৌরবময় জীবন তার আলোচনায় ফুটে ওঠে।

এছাড়া রাষ্ট্রদূত দূতাবাসে ‘বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব নারী ও শিশু প্রশিক্ষণ’ কর্মসূচির উদ্বোধন ঘোষণা করেন ও উপহার বিতরণ করেন। এই কর্মসূচির অধীনে শিশুদের বাংলাভাষা, নাচ, গান, আবৃত্তি এবং নারীদের রান্না ও সেলাই প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

সবশেষে জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা হয় এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে বাংলাদেশি খাবার পরিবেশন করা হয়।

এমএমএ/এমএইচআর/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।