‘ম্যালেরিয়া নির্মূলে পাশের দেশগুলোতেও ব্যবস্থা নিতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৯ পিএম, ১০ আগস্ট ২০২২

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ২০২০ সালের তুলনায় গত বছর দেশে ম্যালেরিয়া আক্রান্তের সংখ্যা ও মৃত্যু বাড়ছে। ম্যালেরিয়া নির্মূলে শুধুমাত্র দেশে ব্যবস্থা নিলে হবে না, পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে সেসব দেশেও যাতে ম্যালেরিয়া সংক্রমণ বন্ধ হয় সে ব্যবস্থা নিতে হবে।

বুধবার (১০ আগস্ট) রাজধানীর বনানীর একটি হোটেলে জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচির স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, ডব্লিউএইচও ও ব্র্যাকের পঞ্চম যৌথ পর্যবেক্ষণ মিশন শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানান, করোনাকালীন সময়ে দেশে অনেকে স্বাস্থ্যসেবা পাননি, এজন্য ম্যালেরিয়ায় মৃত্যু বাড়তে পারে। এছাড়া ম্যালেরিয়া নির্মূলে নিজেদের কাজের পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতেও ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। আমাদের দেশে মশা নির্মূল হলেও সীমানা দিয়ে মশা আটকে থাকে না।

জাহিদ মালেক বলেন, আমাদের লক্ষ্যমাত্রা ২০৩০ সালের মধ্যে দেশকে ম্যালেরিয়া মুক্ত করা। এরই মধ্যে দেশে পোলিও, টিটোনাস মুক্ত করেছি। ২০১৪ সালে ম্যলেরিয়া সংক্রমণ ছিল ৫৭ হাজারের বেশি। বর্তমানে ৬ থেকে ৭ হাজারের বেশি সংক্রমণ হয় না। সঠিকভাবে কাজ করলে ২০৩০ সালের আগেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারবো।

মন্ত্রী জানান, মশাবাহিত রোগ বন্ধে মশার মূল উৎস নষ্ট করতে হবে। বর্তমানে ডেঙ্গুতেও প্রতিদিন ৭০ থেকে ৮০ জন আক্রান্ত হচ্ছেন। মারাও গেছেন অনেকজন। এ কারণে মশা নির্মূলেও আমাদের কাজ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেন, করোনার সময়েও ম্যালেরিয়া নির্মূলে কাজ করেছে সরকার। ২০৩০ সালের মধ্যে পুরো নিয়ন্ত্রণে আনতে হলে উঁচু এলাকা চিহ্নিত করতে হবে। আক্রান্তদের ৭৫ শতাংশ রোগী বান্দরবান এলাকায় পাওয়া গেছে। এসব এলাকায় বেশি নজর দিতে হবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, ডব্লিউএইচও-এর বাংলদেশ রিপ্রেজেনটেটিভ ড. বার্দান জাং রানা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম প্রমুখ।

এএএম/এমআইএইচএস/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।