‘বঙ্গবন্ধুর দর্শন আজ বহির্বিশ্বে প্রশংসিত’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০১:৫৬ এএম, ১৫ আগস্ট ২০২২

বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন এবং ধর্মনিরপেক্ষ মানবতার আদর্শ বাংলাদেশের সীমানা পেরিয়ে আজ বহির্বিশ্বে প্রশংসিত, চর্চিত। তবে এটি আরও বেশি সমৃদ্ধ হবে বাংলাদেশ যদি ৭২-এর সংবিধানে ফিরে যেতে পারে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেভাবে ধর্মীয় রাজনীতি বৃদ্ধি পাচ্ছে, ধর্মের নামে গণহত্যা হচ্ছে, সন্ত্রাস ও নির্যাতনসহ মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে- এর মোকাবিলা করতে হলে দেশে দেশে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে তরুণ সমাজকে আলোকিত ও উজ্জীবিত হতে হবে।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, চট্টগ্রাম জেলার উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু এবং ধর্মনিরপেক্ষ মানবতা ও বিশ্ব শান্তির দর্শন’-শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

রোববার বিকেল ৪টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের এস রহমান মিলনায়তনে সংগঠনের জেলা সভাপতি প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য নইম উদ্দিন চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন শাহ্।

প্রধান বক্তা ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাাদক ও ৮ম জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি। বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত কবিতা আবৃত্তি করেন ডালিয়া বসু সাহা এবং অ্যাডভোকেট মিলি চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে নইম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বিশ্বমানবতার এক উজ্জ্বল নক্ষত্র বঙ্গবন্ধু নিজ দেশে ধর্মনিরপেক্ষতার মাধ্যমে সবার সমান অধিকার নিশ্চিত করতে নিরলস অবদান রেখেছেন।

মফিজুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু ধর্মনিরপেক্ষতার যে ধারণা দিয়েছিলেন, তা পশ্চিমা বিশ্বের ধর্মনিরপেক্ষতার ধরণ থেকে আলাদা ছিল। সেক্যুলারিজম বলতে বঙ্গবন্ধু বুঝিয়েছিলেন অসাম্প্রদায়িকতা। বঙ্গবন্ধুর ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা নয়; বঙ্গবন্ধুর ধর্মনিরপেক্ষতা মানে সমাজে শান্তি বজায় রেখে সবার নিজ নিজ ধর্ম পালন করা, ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি না করা, ধর্মকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার না করা।

ইকবাল হোসেন/এমএইচআর

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।