এডিডাসের ৮ কারখানার শ্রমিকদের মজুরি পরিশোধের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:০৪ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০২২
প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন পাঁচ শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মী ও শ্রমিকেরা

আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড এডিডাসের আট কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদের মজুরি পরিশোধে মানববন্ধন হয়েছে। এই কারখানাগুলো কম্বোডিয়ায় অবস্থিত। ১১ দশমিক ৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মজুরি পরিশোধের দাবি জানানো হয়।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন পাঁচ শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মী ও শ্রমিকেরা।

বক্তারা জানান, মহামারির মাঝামাঝি সময় এডিডাস তাদের সরবরাহ করা কারখানাগুলোর ক্রয়াদেশ কম্বোডিয়ায় স্থগিত করে। ফলে সব কারখানার কর্তৃপক্ষ তাদের শ্রমিকদের মজুরি এবং আইনগত পাওনাদি পরিশোধ করতে পারে নাই। পরবর্তীতে শ্রমিকদের প্রতিবাদের কারণে প্রায় এক মাস পর ৫০০ জন শ্রমিককে চাকরিতে পুনরায় নিয়োগ করা হয়। বাকি শ্রমিকদের এখনো তাদের পাওনাদি পরিশোধ করা হয় নাই।

মানববন্ধনে উপস্থিত বক্তারা জানান, মহামারির প্রথম ১৪ মাসের জন্য শ্রমিকদের ১১ দশমিক ৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মজুরি বকেয়া রয়েছে, যা শ্রমিকপ্রতি ৩৮৭ মার্কিন ডলারের সমান। বহির্বিশ্বে এডিডাসের সাপ্লাই চেইনে শ্রমিকদের মজুরি এখনো পরিশোধ করা হয়নি।

বক্তারা দাবি করেন, কম্বোডিয়ান কারখানা হুলু গার্মেন্টসে মহামারির শুরুতে ক্রয়াদেশ স্থগিত করে এডিডাস। এরপর জোরপূর্বক ও প্রতারণা করে শ্রমিকদের রিজাইনে বাধ্য করা হয়। এছাড়া মজুরি পরিশোধ করা হয়নি।

মানববন্ধনে উপস্থিত জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন বলেন, সাপ্লাই চেইনে শ্রমিকদের মজুরি বকেয়া রেখে এডিডাস ১৮ আগস্ট নিজেদের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করছে। আমরা মনে করি শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের ব্যবস্থা না করে জাঁকজমকপূর্ণ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন সাপ্লাই চেইনে এবং শ্রমিকদের সঙ্গে চরম তামাশা।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী শ্রমিক সংগঠনগুলো হলো বাংলাদেশ গার্মেন্টস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ মুক্ত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন ও বাংলাদেশ সেন্টার ফর ওয়ার্কাস সলিডারিটি।

এএএম/জেডএইচ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।