জেলা পরিষদ নির্বাচন

চট্টগ্রামে লড়ছেন ৭২ জন, প্রতীক বরাদ্দ আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ১০:২৯ এএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে তিন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৭২ জন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে একজন মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেওয়ায় বাকি দুই প্রার্থীর মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পেয়ারুলের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী নারায়ণ রক্ষিত। রোববার পর্যন্ত সাধারণ সদস্য পদে আটজন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে তিনজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন।

প্রত্যাহার শেষে সংরক্ষিত সদস্য পদে ২২ ও সাধারণ সদস্য পদে ৪৮ জন প্রার্থী আছেন। এরমধ্যে সাধারণ সদস্য পদে মিরসরাই, রাউজান, রাঙ্গুনিয়া ও আনোয়ারায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হচ্ছেন প্রার্থীরা। সোমবার প্রতীক বরাদ্দ শেষে প্রচারণা শুরু হবে।

মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা প্রার্থীরা হলেন চেয়ারম্যান পদে মো. ফয়েজুল ইসলাম, সংরক্ষিত সদস্য পদে সীতাকুন্ডের দিলোয়ারা বেগম, বোয়ালখালীর তিষণ ভট্টচার্য্য, পটিয়ার সুমি দে, সাধারণ সদস্য পদে মিরসরাইয়ের মিহির কান্তি নাথ, কালু কুমার দে, সন্দ্বীপের নাদিম শাহা আলমগীর, মো. মাহফুজুর রহমান, হাটহাজারীর মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিকি, বোয়ালখালীর এস.এম মিজানুর রহমান, মো. আবুল মোকারম ও মনসুর আহমদ।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. কামরুল আলম বলেন, একজন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। সবমিলিয়ে তিন পদে ৭২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন।

নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদে (মিরসরাই) সাধারণ ওয়ার্ড-১ প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী, ওয়ার্ড-২ (সীতাকুণ্ড) আ.ম.ম দিলসাদ, মো. শওকতুল আলম, ওয়ার্ড-৩ (সন্দ্বীপ) মো. নুরুন্নবী ভুট্টো, মুহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান, মো. রফিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন, মো. আলাউদ্দীন, শাহেদ সরোয়ার শামীম, কামরুল হাসান আলাল, ওয়ার্ড-৪ (ফটিকছড়ি) আখতার উদ্দীন মাহমুদ, মো. আমান উল্লাহ খান চৌধুরী, ওয়ার্ড-৫ (হাটহাজারী ও নগর আংশিক) মোহাম্মদ আবু আলম, গোলাম মোস্তফা, জাফর আহমেদ, মোহাম্মদ আলমগীর, মো. নুরুল আবছার, এইচ.এম আলী আবরাহা, মো. মনজুর হোসেন চৌধুরী, মো. এজাহার মিয়া, মো. সেলিম উদ্দীন, ওয়ার্ড নং-৬ (রাউজান) কাজী আবদুল ওহাব, ওয়ার্ড-৭ (রাঙ্গুনিয়া) আবুল কাশেম চিশতী, ওয়ার্ড-৮ (বোয়ালখালী ও নগর আংশিক) বোরহান উদ্দিন এমরান, মোহাম্মদ ইউনুছ, ওয়ার্ড-৯ (কর্ণফুলী ও নগর আংশিক) ইসলাম আহমদ, অধ্যাপক মো. রাশেদুল আলম, ওয়ার্ড- ১০ (পটিয়া) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, দেবব্রত দাশ, ওয়ার্ড-১১ (চন্দনাইশ) মো. শেখ টিপু চৌধুরী, আবু আহমেদ চৌধুরী, ওয়ার্ড-১২ (আনোয়ারা ও নগর আংশিক) এস.এম আলমগীর চৌধুরী, ওয়ার্ড-১৩ (বাঁশখালী) শাহদাত হোসেন চৌধুরী, মোহাম্মদ আবদুল আজিজ, কল্যাণ বড়ুয়া, হামিদ উল্লাহ, মো. মো. নুর হোছাইন, এম জিল্লুর করিম শরিফী, মোজাম্মেল হক সিকদার, মো. নুরুল মোস্তফা সিকদার, মোহাম্মদ আলমগীর কবির, মো. খালেকুজ্জামান, ওয়ার্ড-১৪ (সাতকানিয়া) গোলাম ফেরদৌস, মনির আহমেদ, আবদুল আলীম, ওয়ার্ড- ১৫ (লোহাগাড়া) আনোয়ার কামাল, মোহাম্মদ এরফানুল করিম চৌধুরী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন।

সংরক্ষিত ওয়ার্ড-১ জাহান আরা নাজনীন, ইয়াছমিন আক্তার কাকলী, রওশন আরা বেগম, ইসমত আরা সুলতানা, নার্গিস আকতার, সংরক্ষিত ওয়ার্ড-২ দিলোয়ারা ইউসুফ, জুবাইদা সরওয়ার চৌধুরী নিপা, এড. উম্মে হাবিবা, সংরক্ষিত ওয়ার্ড-৩ তাহমিনা আক্তার চৌধুরী, জগদা চৌধুরী, মোস্তফা রাহিলা চৌধুরী, সংরক্ষিত ওয়ার্ড-৪ দিলোয়ারা বেগম, মোছাম্মৎ দিলুয়ারা বেগম, রেহেনা বেগম ফেরদৌস চৌধুরী, সাজেদা বেগম, মোছাম্মৎ ফারহানা আফরীন জিনিয়া, সংরক্ষিত ওয়ার্ড-৫ দিলোয়ারা বেগম, রুখছানা আকতার, শাহিদা আকতার জাহান, শিকু আরা বেগম, তসলিমা আক্তার, সুরাইয়া খানম প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হবে ১৭ অক্টোবর। ১৫ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা দুই হাজার ৭৩১ জন। পুরুষ ভোটার দুই হাজার ৯৪ জন ও নারী ভোটার ৬৩৭ জন। নির্বাচন শেষে জয়ী প্রার্থীদের নিয়ে মোট ২১ জনের জেলা পরিষদ গঠিত হবে। এরমধ্যে চেয়ারম্যান একজন, সাধারণ সদস্য ১৫ জন ও সংরক্ষিত সদস্য নির্বাচিত হবেন পাঁচজন।

ইকবাল হোসেন/জেডএইচ/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।