শেখ হাসিনা এখন বিশ্ব জলবায়ু নেত্রী: পরিবেশমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৩ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পক্ষে জোরালো ভূমিকা পালন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব জলবায়ু নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন পরিবেশমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর উল্লেখযোগ্য কর্মকাণ্ড ও বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর সমগ্র বিশ্বে প্রশংসিত হচ্ছে। জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় তার পরামর্শ এখন বিশ্বের বিভিন্ন সভায় গৃহীত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বিশ্বে রোল মডেল।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হবে না, শুধু সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। দেশ যতদিন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে থাকবে, ততদিন নিরাপদ থাকবে। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোঁটানোর জন্যই তিনি বেঁচে আছেন। তিনি দেশকে সুন্দরভাবে সাজিয়ে ফেলছেন। তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমাদের সবাইকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।

বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করার কাজ সম্পন্ন করার জন্য শেখ হাসিনার দীর্ঘজীবন কামনা করেন শাহাব উদ্দিন।

এ সময় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন) ও কবি মো. মনিরুজ্জামান ‘একাত্তর একটি মহাকাব্য’ শীর্ষক কাব্যগ্রন্থ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর রচিত ‘বাংলাদেশের দেবদূত’ শিরোনামে একটি স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন। তিনি উল্লেখ করেন, ‘তোমাকেই ঘিরে বাঙালি আশায় বুক বাধে....আবার জাগিবে বাঙালি, পৃথিবীর মানচিত্রে করে নিবে ঠাঁই, মর্যাদার উচ্চ আসনে বসবে স্বমহিমায়; বাংলাদেশের দেবদূত শেখ হাসিনার উচ্ছল হাসিতে উদ্ভাসিত হবে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ!’

সভায় মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মো. মিজানুল হক চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন) মো. মনিরুজ্জামান, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আব্দুল হামিদ এবং বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক মো. আমীর হোসাইন চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আইএইচআর/ইএ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।