মেক্সিকোর সঙ্গে সাংস্কৃতিক বিনিময় চুক্তি ১ অক্টোবর: প্রতিমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২০ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ ও রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম

আগামী ১ অক্টোবর বাংলাদেশ ও মেক্সিকোর মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় চুক্তি সম্পাদিত হবে বলে জানিয়েছেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

মেক্সিকোর বাংলাদেশ দূতাবাসের আয়োজনে মেক্সিকো প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মেক্সিকো প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর অত্যন্ত সম্ভাবনাময় এবং বৈচিত্র্যময় একটি দেশ। দেশটির রয়েছে সমৃদ্ধ সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য। আমার চলমান মেক্সিকো সফরে আগামী ১ অক্টোবর বাংলাদেশ ও মেক্সিকোর মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় চুক্তি সম্পাদিত হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। এটি সম্পাদিত হলে অচিরেই মেক্সিকোর সঙ্গে আমাদের সাংস্কৃতিক বিনিময় কার্যক্রম আরও জোরদার ও বেগবান হবে।

তিনি আরও বলেন, মেক্সিকোতে ই-পাসপোর্ট চালুর বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সঙ্গে কথা বলে সমস্যার সমাধান করা হবে।

বাংলাদেশ থেকে তুলা আমদানির বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য প্রতিমন্ত্রী ব্যবসায়ীদের পরামর্শ দেন। তাছাড়া মেক্সিকো থেকে এমবিবিএস পাস করা একজন বাংলাদেশি চিকিৎসকের বিএমডিসি’র সার্টিফিকেট পেতে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেন কে এম খালিদ।

মেক্সিকোতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলামের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও ইউনেস্কোর স্থায়ী প্রতিনিধি খন্দকার এম তালহা, মেক্সিকো দূতাবাসের কাউন্সেলর শাহনাজ আক্তার রানু, প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব মোহাম্মদ আলতাফ হোসেনসহ মেক্সিকোতে বসবাসরত বাংলাদেশি ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন।

সভায় অংশগ্রহণকারী সবাই বাংলাদেশে মেক্সিকো দূতাবাস চালুর বিষয়ে প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

আরএমএম/ইএ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।