ইস্কাটনে এলাকাভিত্তিক কৃষকের বাজার চালু

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

স্বাস্থ্যকর ও নিরাপদ খাদ্যের প্রতিশ্রুতি দিয়ে রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেন রোডে (ঢাকা লেডিস ক্লাবের পাশে) এলাকাভিত্তিক কৃষকের বাজার চালু হয়েছে। প্রতি শুক্রবার সকাল ৭টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বসবে এ বাজার।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে নেদারল্যান্ডস সরকারের সহায়তায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি), জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের সম্মিলিত উদ্যোগে এ বাজার চালু করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, কৃষকরা দেশের অন্যতম চালিকাশক্তি। দুঃখজনক হলেও সত্য কৃষকদের উৎপাদিত পণ্যের সঠিক মূল্যপ্রাপ্তি এখনো নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি। অন্যদিকে একটি যথাযথ বাজার ব্যবস্থাপনার অভাবে নিরাপদ খাদ্যপ্রাপ্তি রাজধানীবাসীর একটি বড় চ্যালেঞ্জ। অথচ একটি সঠিক বাজার ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতের মাধ্যমে কৃষক ও ভোক্তার মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে আনা সম্ভব।

আয়োজকরা জানান, সাভারের তেুঁতলঝোড়া থেকে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের যাচাই করা ১০জন চাষি তাদের উৎপাদিত সবজি এবং ফলমূল বিক্রি করবেন। এলাকাবাসীর জন্য স্বাস্থ্যকর ও নিরাপদ খাদ্যের যোগান দিতে প্রতি শুক্রবার সকাল ৭টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ইস্কাটন গার্ডেন রোডে ঢাকা লেডিজ ক্লাবের পাশে এ বাজারটি বসবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ আবুল বাশার বলেন, ঢাকাবাসীর জন্য নিরাপদ খাদ্যপ্রাপ্তি একটি বড় চ্যালেঞ্জ। কৃষকের বাজার কার্যক্রমের মাধ্যমে এ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কৃষকদের প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলর কার্যালয় থেকে নিশ্চিত করা হবে। কৃষকদের প্রতি অনুরোধ, তারা যেন নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করবেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ড. সানজিদা ইসলাম বলেন, এ বাজারে নিরাপদ ও তাজা সবজি নিয়মিত আসছে কি না, তা এলাকাবাসীকে খেয়াল রাখতে হবে। বাজারের বর্জ্যরে কারণে যেন রাস্তা নোংরা হয়ে এলাকাবাসীর অসুবিধা সৃষ্টি না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি খাদ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য নিয়মিত তদারকি জরুরি।

সাভার উপজেলার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর হাতে কলমে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কৃষকদের উত্তম কৃষি চর্চা শেখানো হয়। এখানে যে পণ্য পাওয়া যায়, তা সম্পূর্ণ নিরাপদ। আমি কৃষকদের অনুরোধ জানাই, তারা যেন পণ্যের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখেন, নতুবা ভোক্তারা নিরুৎসাহিত হবেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের সিনিয়র প্রজেক্ট ম্যানেজার জিয়াউর রহমান। এতে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ফুড সিস্টেম প্রকল্পের সাসটেইনেবল অ্যাগ্রিকালচার স্পেশালিস্ট জাহাঙ্গীর আলমসহ আরও অনেকে।

আরএসএম/আরএডি/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।