বাংলাদেশ-মেক্সিকোর মধ্যে সাংস্কৃতিক সহযোগিতায় সমঝোতা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:২৪ পিএম, ০১ অক্টোবর ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ ও মেক্সিকো সরকারের মধ্যে সাংস্কৃতিক সহযোগিতা বিষয়ক একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) মেক্সিকো সিটির লস পিনোসে দু-দেশের মধ্যে এ চুক্তি সই হয়। দেশটিতে সফররত সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এবং মেক্সিকো সরকারের সংস্কৃতি সচিব আলেহান্দ্রা ফ্রাউস্টো গেরেরো সমঝোতা স্মারকে সই করেন।

শনিবার (১ অক্টোবর) সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের মাধ্যমে উভয় দেশের ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক পুরাকীর্তি, স্মৃতিস্তম্ভ সংরক্ষণ ও পুনরুদ্ধারের জন্য নির্ধারিত গ্রন্থাগার, জাদুঘর, আর্কাইভ এবং বিভাগগুলোর মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপনের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

একই সঙ্গে চিত্রশিল্পী ও কারিগর, শিল্প সমালোচক, লোকশিল্প বিশেষজ্ঞ, লোককাহিনী ও অডিওভিজ্যুয়াল প্রযোজক বিনিময় এবং শিল্পের অন্যান্য ক্ষেত্র যেমন- সংগীত, ভিজ্যুয়াল আর্ট, সিনেমাটোগ্রাফি সংরক্ষণে এবং পুনরুদ্ধারে সমঝোতা স্মারকটি ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

এর মাধ্যমে প্রত্নতাত্ত্বিক ঐতিহ্য, সাহিত্যের অনুবাদ, পারফরমিং, ভিজ্যুয়াল আর্ট ও সাহিত্যে সহযোগিতা বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি উভয় দেশে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন উৎসব, বইমেলা এবং অন্যান্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে একে অপরের অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করবে।

সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরের সময় মেক্সিকো সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক পাবলো রাফায়েল দেলা মাদ্রিদ, আইন উপদেষ্টা এরেন্দিরা ক্রজ ভিজ গাস উপস্থিথ ছিলেন। এ সময় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তা এবং মেক্সিকোতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম এবং কাউন্সেলর শাহানাজ আখতার রানু উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/কেএসআর/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।