চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত হত্যা

আওয়ামী লীগ নেতা দিদারুলসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:২৫ পিএম, ০৩ অক্টোবর ২০২২
নিহত ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত বিশ্বাস, ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত বিশ্বাস হত্যা মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা দিদারুল আলম মাসুমসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত।

সোমবার (৩ অক্টোবর) দ্বিতীয় অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ মো. আমিরুল ইসলামের আদালতে অভিযোগ গঠন শেষে মামলার বিচার কার্যক্রম শুরুর নির্দেশ দেন।

এ মামলায় আগামী ৩০ অক্টোবর সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মহানগর দায়রা জজ আদালতের পিপি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মো. ফখরুদ্দিন চৌধুরী বলেন, সুদীপ্ত হত্যা মামলা আজ (সোমবার) আদালতে অভিযোগ গঠন হয়েছে। আসামিরা ডিসচার্জ আবেদন করেছিলেন। শুনানি শেষে তাদের আবেদন নামঞ্জুর করে সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য করেছেন। মামলায় ২৪ জন আসামির বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় চার্জ গঠন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ৬ অক্টোবর মহানগরীর সদরঘাটের দক্ষিণ নালাপাড়ার নিজ বাসার সামনে মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক সুদীপ্ত বিশ্বাসকে পিটিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় সুদীপ্ত বিশ্বাসের বাবা মেঘনাথ বিশ্বাস বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি তদন্ত শেষে গত বছরের ১ ফেব্রুয়ারি অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

অভিযোগপত্রে দিদারুল আলম মাসুমসহ মোট ২৪ জনকে আসামি করা হয়। এদের মধ্যে ১৮ জন বিভিন্ন সময় গ্রেফতার হন। পরে ২৪ আসামির মধ্যে ২৩ জন জামিনে রয়েছেন। পিবিআইয়ের দেওয়া অভিযোগপত্রে সুদীপ্ত খুনের নির্দেশদাতা ও পরিকল্পনাকারী হিসেবে লালখানবাজার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম মাসুমের নাম উল্লেখ করা হয়।

দিদারুল আলম মাসুমের পাশাপাশি খুনে সরাসরি জড়িত হিসেবে খাইরুল নূর ইসলাম ওরফে খায়ের, আমির হোসেন ওরফে বাবু, মোক্তার, জিহাদসহ ২৪ জনকে আসামি করা হয়। অভিযোগপত্রে ৭৫ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

ইকবাল হোসেন/এমআরএম/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।