চট্টগ্রামের ডিসি হিলে ‘দুর্বার তারুণ্য’র বৃক্ষরোপণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৩:৫৯ পিএম, ০৭ অক্টোবর ২০২২
চট্টগ্রামের ডিসি হিলে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘দুর্বার তারুণ্য’ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করে

চট্টগ্রাম মহানগরীর ডিসি হিলে বৃক্ষরোপণ করেছে সামজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দুর্বার তারুণ্য। সংগঠনটির ‘আমরাই মালি’ প্রকল্পের আওতায় এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) সকাল ১১টায় শুরু হওয়া এ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনটির প্রধান উপদেষ্টা হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর।

দুর্বার তারুণ্যের প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ আবু আবিদের সভাপতিত্বে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- স্থানীয় যুবলীগ নেতা শিবু প্রসাদ চৌধুরী, দুর্বার তারুণ্যের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আবু আদিল, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জিহাদুল ইসলাম, মো. আবুল হাসান, কামরুল ইসলামসহ আরও অনেক।

এ সময় হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর বলেন, বৃক্ষরোপণের উদ্দেশ্য ও প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে বেশি করে গাছের চারা রোপণ করতে হবে ও এর পরিচর্যা করতে হবে। এতে মানবজাতি ও প্রাণিকূলের বৃহত্তর কল্যাণ ঘটবে।

তাছাড়া ভারসাম্যপূর্ণ ও দূষণমুক্ত পরিবেশ তৈরিতে বনায়নের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। একটি পূর্ণবয়স্ক গাছ বছরে যে পরিমাণ অক্সিজেন সরবরাহ করে, তা কমপক্ষে ১০ জন পূর্ণবয়স্ক মানুষের বার্ষিক অক্সিজেনের চাহিদা মেটায়। গাছবিহীন পৃথিবীতে এক মুহূর্তও টিকে থাকা সম্ভব নয়।

দুর্বার তারুণ্যের প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ আবু আবিদ তাদের ‘আমরাই মালি’ প্রকল্প সম্পর্কে বলেন, আসলে বৃক্ষরোপণে সবার আগে দরকার আন্তরিকতা। ‘গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান’ বললে বৃক্ষরোপণের দায়টা কি সুকৌশলে অন্যের কাঁধে ঠেলে দেওয়া হয় না? এটা আর যাই হোক, আন্তরিকতার পরিচয় নয়।

‘পৃথিবীকে আসলেই বাঁচাতে চাইলে আমাদের মনের কথা হোক- ‘আসুন, গাছ লাগাই, পরিবেশ বাঁচাই’। পরিবেশ যার মাধ্যমে বাঁচবে, সে হলো বৃক্ষ।’

নগরীকে সবুজ করার উদ্দেশ্যে দুর্বার তারুণ্যের সদস্যরা নিজেরাই সেজেছেন মালি, কাজ করছেন নতুন মালি তৈরিতে। শুধু গাছ লাগিয়ে দায় সারা নয়, প্রকল্পটির মাধ্যমে গাছের পরিচর্যার বিষয়েও সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা তৈরিতে কাজ করছে সংগঠনটি।

ইকবাল হোসেন/এসএএইচ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।