কলকাতার থিয়েটার রোডের ৮ নম্বর বাড়িটি চেয়েছে বাংলাদেশ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৬ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২২
মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশে নবনিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা

মুজিবনগর সরকারের স্মৃতি বিজড়িত কলকাতার থিয়েটার রোডের ৮ নম্বর বাড়িটি চেয়েছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের নতুন হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা সাক্ষাৎ করতে এলে তার কাছে এ অনুরোধ জানান মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

এছাড়া বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের বৃত্তি, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা, মুজিবনগরে স্বাধীনতা সড়ক নির্মাণ বিষয়ে হাইকমিশনারের সঙ্গে আলোচনা করেন মন্ত্রী। একই সঙ্গে মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবনদানকারী ভারতের মিত্রবাহিনীর স্মরণে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে স্মৃতিসৌধ নির্মাণের কথা হাইকমিশনারকে বলেন তিনি।

এদিকে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিজয় দিবস উপলক্ষে ভারত যাচ্ছেন ৩০ বীর মুক্তিযোদ্ধা। দেশটির সরকারের আমন্ত্রণে তারা যাচ্ছেন। একই সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের আমন্ত্রণে মুক্তিযুদ্ধকালীন ভারতীয় মিত্র বাহিনীর সদস্যরা বাংলাদেশে আসবেন।

jagonews24

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারত সরকার এবং জনগণের সহায়তার কথা কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন। এ সময় বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক, মুক্তিযুদ্ধ এবং দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক পরীক্ষিত। মিত্রবাহিনীর সদস্যদের স্মরণে স্মৃতিসৌধ নির্মাণ বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বকে আরও সুদৃঢ় করবে।

৬ ডিসেম্বর (ভারতের বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদান দিবসে) ভারতীয় হাইকমিশন ‘মৈত্রী দিবস’ আয়োজন করবে বলে তিনি জানান। একই সঙ্গে এ আয়োজনে মন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান তিনি।

মন্ত্রী ভারতের হাইকমিশনারকে জাতীয় স্মৃতিসৌধের রেপ্লিকা এবং মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক বই উপহার দেন। এসময় মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব খাজা মিয়াসহ মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় হাইকমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

আরএমএম/জেডএইচ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।