শ্বাসরোধে স্বামীকে হত্যা করেন প্রথম স্ত্রী, দাবি পুলিশের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৮:১৫ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২২
নিহত আবদুল মান্নান

চট্টগ্রামে আবদুল মান্নান (৪৫) হত্যার ঘটনায় তার স্ত্রী খাদিজা বেগমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) বিকেলে হত্যা মামলার পর তাকে গ্রেফতার করা হয়।

নিহত আবদুল মান্নান ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ফটিকছড়ি শাখার মডেল কেয়ারটেকার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি ফটিকছড়ির বাঘমারা এলাকায়। তার দুই স্ত্রী। খাদিজা বেগম প্রথম স্ত্রী।

পাঁচলাইশ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাদিকুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, আবদুল মান্নানকে বালিশচাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রতিবেশীরা খাদিজার ঘর থেকে গোঙানির শব্দ শুনে ৯৯৯ এ ফোন করেন। পুলিশ ৯৯৯ এ কল পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মান্নানের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে খাদিজাকে আটক করা হয়েছে। খুন করার বিষয়টি তিনি প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছেন।

ঘটনার সময় খাদিজার ছেলে ও মান্নানের ভগ্নীপতি একই বাসার আরেকটি কক্ষে ঘুমাচ্ছিলেন বলে জানা গেছে।

পাঁচলাইশ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজিম উদ্দিন জানান, আবদুল মান্নানের দুই স্ত্রী। প্রথম স্ত্রী নগরের নাজিরপাড়ায় বসবাস করেন। দ্বিতীয় স্ত্রী নিয়ে ফটিকছড়িতে গ্রামের বাড়িতে থাকেন মান্নান। মাঝে মধ্যে প্রথম স্ত্রীর বাসায় যেতেন মান্নান। দ্বিতীয় বিয়ের পর প্রথম স্ত্রীর ভরণপোষণ প্রায় বন্ধ করে দেন। বুধবার মান্নান তার অসুস্থ ভগ্নীপতিকে নিয়ে প্রথম স্ত্রী খাদিজার বাসায় যান। সেখানে পারিবারিক কলহের জেরে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার একপর্যায়ে কম্বল দিয়ে মান্নানের মুখ চেপে ধরেন খাদিজা। এতে শ্বাসরোধ হয়ে মান্নানের মৃত্যু হয় বলে খাদিজাকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে।

ইকবাল হোসেন/জেডএইচ/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।