ইন্টারন্যাশনাল উইমেন পিস আ্যন্ড সিকিউরিটি সেমিনার উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৩ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২

সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের সার্বিক তত্ত্বাবধানে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ পুলিশের সহযোগিতায় ইন্টারন্যাশনাল উইমেন পিস আ্যন্ড সিকিউরিটি (ডব্লিউপিএস) সেমিনার-২০২২ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) ঢাকা সেনানিবাসের আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ সেমিনার উদ্বোধন করেন।

প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেয়।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পক্ষ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

সেমিনারে বিভিন্ন বন্ধু প্রতিম দেশের প্রতিনিধি, বিশিষ্ট ব্যক্তি, মিডিয়া ব্যক্তিত্বসহ দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা, সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

এছাড়াও সেমিনারে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বাহিনী/সংস্থা, বিশ্ববিদ্যালয় ও বিদেশি সংস্থা থেকে সামরিক ও অসামরিক প্রায় ৩৫০ জন প্রতিনিধি অংশ নেন।

বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে বিশ্বে রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। দেশের জনসংখ্যার অর্ধেক নারী এবং তাদের অর্থনৈতিক অংশগ্রহণ উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাষ্ট্র গঠনের প্রাথমিক পর্যায়ে সঠিকভাবে চিহ্নিত করেছেন যে জাতীয় জীবনের সব ক্ষেত্রে সমান সুযোগ প্রদানের মাধ্যমে নারীর সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা ছাড়া কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন করা সম্ভব নয়।

প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, সংসদ উপনেতাসহ জাতীয় সংসদে নারীদের প্রতিনিধিত্ব যে কোনো দেশের জন্য অনুকরণীয়। বাংলাদেশের নারীরা জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে দক্ষতা ও সুনামের সঙ্গে কাজ করছে।

বাংলাদেশ সামরিক বাহিনী এবং বাংলাদেশ পুলিশ শান্তিরক্ষা মিশনের অস্থিতিশীল নিরাপত্তা পরিস্থিতিতে শান্তিরক্ষী হিসেবে নারীদের নিয়োগ করে নারীর ক্ষমতায়নে নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

শান্তি প্রতিষ্ঠায় নারীর ভূমিকাকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়ার লক্ষ্যে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ২০০০ সালে রেজুলেশন ১৩২৫ গ্রহণ করে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৯ সালে বাংলাদেশ ন্যাশনাল অ্যাকশন প্ল্যান অন উইমেন পিচ অ্যান্ড সিকিউরিটি নামের তিন বছর মেয়াদী কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করে।

এ জাতীয় পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ডিফেন্স অ্যাকশন প্ল্যান অন উইমেন, পিচ অ্যান্ড সিকিউরিটির কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ গত ৮ ফেব্রুয়ারি WPS CHODs Network এর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।

এসব বিষয়সমূহকে উপজীব্য করে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশে উইম্যান, পিচ এবং সিকিউরিটি শীর্ষক এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়। সেমিনারের সহ আয়োজন হিসেবে একই দিনে ডব্লিও পি এস সিএইচওডিএস নেটওয়ার্ক এর ২৬টি সদস্য রাষ্ট্রে প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে একটি বার্ষিক সম্মেলন আয়োজন করা হয়েছে।

দুই দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের সঙ্গে ২৯ নভেম্বর মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয়।

মতবিনিময়ে বিভিন্ন বন্ধু প্রতিম দেশের সামরিক ও অসামরিক প্রায় ৫০ জন দেশি/বিদেশি প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন।

টিটি/এমআইএইচএস/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।