ঢাবিতে নারীকে গাড়িচাপা

মামলার অগ্রগতি বিষয়ে এখনো কিছু জানে না পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৩ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকরিচ্যুত শিক্ষক আজহার জাফর শাহের প্রাইভেটকারের চাপায় রুবিনা আক্তার (৪৫) নামে এক নারী নিহতের ঘটনায় করা মামলার অগ্রগতি বিষয়ে এখনো কিছু জানা নেই ভুক্তভোগী পরিবারের।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে মামলার বাদী নিহত রুবিনার ভাই জাকির হোসেন মিলন জাগো নিউজকে বলেন, বোনের মৃত্যুর ঘটনায় পরিবার এখনো শোকগ্রস্ত। আমরা এখনো শোক কাটিয়ে উঠতে পারিনি। মামলার অগ্রগতি বিষয়ে কিছু জানি না।

তিনি বলেন, আমরা মামলা করেছি। পুলিশ আমাদের জানিয়েছে মামলা হওয়ার পরই এ ঘটনায় জড়িত আজহার জাফর শাহকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। আসামি সুস্থ হলেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

মামলার বাদী আরও বলেন, পুলিশের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে এটা হত্যাকাণ্ড। তারা বলেছে, আপনারা মরহুমার দাফন সম্পন্ন করে আসুন। আমরা মামলাটির বিষয়ে ব্যবস্থা নেবো।

জাকির হোসেন মিলনের দাবি, তার বোনকে হত্যা করা হয়েছে। এটা কোনো দুর্ঘটনা নয়। এ হত্যাকাণ্ডের ন্যায়বিচার হওয়া উচিত।

du acc

মামলার বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর মোহাম্মদ জাগো নিউজকে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) এলাকায় গাড়ির নিচে চাপা পড়ে নারী নিহতের ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার একমাত্র আসামি গ্রেফতার রয়েছে। আসামি অসুস্থ থাকায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। সুস্থ হলেই তাকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করবো।

গত শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) বিকেলে ঢাবি ক্যাম্পাস এলাকায় এক নারীকে প্রাইভেটকারের নিচে পিষে টেনে নেওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ওই প্রাইভেটকারের চালক ছিলেন ঢাবির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সাবেক সহকারী অধ্যাপক আজহার জাফর শাহ৷ এসময় উপস্থিত জনতার পিটুনির পর ওই শিক্ষককেও ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আরএসএম/এমকেআর/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।