গাবতলীতে পুলিশের চেকপোস্ট, তল্লাশি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২৭ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২
গাবতলীতে চেকপোস্ট বসিয়ে ঢাকামুখী দূরপাল্লার যানবাহনে পুলিশের তল্লাশি

সারাদেশে ১ ডিসেম্বর থেকে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেছে পুলিশ, যা চলবে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এছাড়া আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে রাজধানীতে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করে বলা হচ্ছে, আসন্ন গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ও চেকপোস্ট বসিয়ে তাদের দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করছে।

এসবের মধ্যেই রাজধানীর গাবতলী এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে ঢাকামুখী দূরপাল্লার যানবাহনে পুলিশ তল্লাশি চালাচ্ছে। পুলিশের বিপুল সংখ্যক সদস্য চেকপোস্টে সব যানবাহন থামিয়ে তল্লাশি করছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, আমিনবাজার ব্রিজ পার হয়ে ঢাকার প্রবেশমুখে গাবতলী এলাকায় পুলিশের চেকপোস্টটি পরিচালিত হচ্ছে। চেকপোস্টে পুলিশ বাস, ট্রাক, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেল আকে চালকদের এবং যাত্রীদের নানা বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। যাত্রীদের কাছে পুলিশ সদস্যরা জানতে চাচ্ছেন তারা কী কারণে, কেন ঢাকায় এসেছেন?

আরও দেখা যায়, পুলিশের কাছে যাদের সন্দেহজনক মনে হচ্ছে তাদের আরও অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

তবে গাবতলীতে পরিচালিত চেকপোস্টটি বিশেষ কোনো উদ্দেশ্য পরিচালিত হচ্ছে না বলে দাবি করেছে পুলিশ। এটি রুটিন ওয়ার্কের চেকপোস্ট দাবি করে পুলিশ জানায়, সারা বছর এ ধরনের কার্যক্রম চলে।

তবে আসন্ন ১০ ডিসেম্বর বিএনপির গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে চেকপোস্টটিতে পুলিশের উপস্থিতি বাড়ানো হয়েছে বলে দাবি অনেকের।

এ বিষয়ে ডিএমপির দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোফায়েল আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, রুটিন ওয়ার্ক হিসেবে চেকপোস্ট পরিচালিত হচ্ছে। চেকপোস্টে ঢাকায় আসা গাড়ি অনেক সময় তল্লাশি করা হয়। তবে বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে চেকপোস্টে পুলিশের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।

টিটি/কেএসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।