চট্টগ্রামে ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানে দুই প্রতিষ্ঠানে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:৩৪ পিএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

চট্টগ্রাম মহানগরীর খুলশী ও ওয়াসা মোড় এলাকায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযানে এক ফার্মেসিতে মিলেছে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ। একই সঙ্গে অন্য এক ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ল্যাবে মিলেছে রোগীদের ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার প্রমাণ।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে অভিযান চালিয়ে প্রতিষ্ঠান দুটিকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

এর মধ্যে ওয়াসা মোড়ের হেলথ কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা এবং ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার অভিযোগের সত্যতা পায় অভিযান পরিচালনাকারী দল।

অন্যদিকে খুলশী এলাকার চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতাল ফার্মেসিকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ও বিক্রির জন্য ইনজেকশন সংরক্ষণ এবং অননুমোদিত বিদেশি ইনজেকশন বিক্রির অভিযোগের সত্যতা পায় অধিদপ্তরের অভিযান পরিচালনাকারীরা।

সকাল ১০ থেকে পরিচালিত অভিযানে নেতৃত্ব দেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক ফয়েজ উল্ল্যাহ, সহকারী পরিচালক মো. দিদার হোসেন ও মো. আনিছুর রহমান।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় উপ-পরিচালক ফয়েজ উল্ল্যাহ বলেন, খুলশী এলাকার চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালটি বড় প্রতিষ্ঠান। এ হাসপাতালের ফার্মেসিতে বিক্রির জন্য মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ও ইনজেকশন সংরক্ষণ করেছিল। তাছাড়া অননুমোদিত বিদেশি ইনজেকশনও পাওয়া গেছে ফার্মেসিটিতে। যে কারণে ওই ফার্মেসিকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। অন্যদিকে ওয়াসার মোড এলাকার হেলথ কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টার রোগীদের ভুয়া রিপোর্ট দিয়ে আসছিল। ওই প্রতিষ্ঠানটিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ইকবাল হোসেন/এমআইএইচএস/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।