যাত্রী সংকটে বন্ধ দূরপাল্লার বাস

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০৬ পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

বরিশাল থেকে পটুয়াখালীগামী সাকুরা পরিবহন। শনিবার (১০ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই গাবতলী থেকে এই পরিবহনের একটি বাসও ছেড়ে যায়নি। মূলত যাত্রী সংকটে দূরপাল্লার পরিবহন বন্ধ।

সাকুরা পরিবহনের হাবিব বলেন, সকাল থেকে ১১টা পর্যন্ত একটা বাসও ছাড়তে পারিনি। অথচ ১০টা পর্যন্ত ৫টা গাড়ি ছেড়ে যেত। প্যাসেঞ্জার নাই, খালি খালি গাড়ি ছেড়ে কী করবো?

বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশ উপলক্ষে কয়েক দিন ধরে এ সমাবেশকে ঘিরে রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত। সাধারণ মানুষের মনেও রয়েছে শঙ্কা। শনিবার সকাল থেকেই রাজধানীর রাস্তাঘাট ফাঁকা। সড়কে যানবাহনের সংখ্যা কম। পথচারী ও যাত্রীর উপস্থিতিও হাতেগোনা। ফলে গাবতলীতে আসছে না যাত্রী। মূলত যাত্রী সংকটে বন্ধ রয়েছে বাস চলাচল।

ঢাকা থেকে খুলনাগামী ঈগল পরিবহন। সকাল থেকে একটি গাড়িও ছেড়ে যায়নি। অথচ ১১টার মধ্যে তিনটি গাড়ি ছেড়ে যেত।

ঈগল পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার জিয়াউর রহমান বলেন, যাত্রী নাই, তাই সকাল থেকে একটা গাড়িও ছাড়তে পারিনি। এতক্ষণ তিনটা গাড়ি ছেড়ে দিতাম। গাড়ি ছাড়তে সমস্যা নাই, কিন্তু যাত্রী নাই। ঢাকার মধ্যে ছোট ছোট বাস বন্ধের কারণ গাবতলীতে যাত্রী নাই।

jagonews24

হানিফ পরিবহনের সেলস ম্যানেজার জুয়েল হায়দার বলেন, সকাল থেকে যাত্রী নেই কীভাবে গাড়ি ছাড়বো? গাড়ি ছাড়তে সমস্যা নাই। কিন্তু যাত্রী নাই।

তবে জরুরি প্রয়োজনে কিছু যাত্রী গাবতলীতে এসে দুর্ভাগে পড়েছেন। এসব ভুক্তভোগী যাত্রীদের থেকে বাড়তি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। কিন্তু এসব বাস কখন ছাড়বে তার কোনো নির্দিষ্ট সময় নেই।

মোহাম্মদ হাসানুর রহমান গাজী, তার গন্তব্যস্থল ঝিনাইদহের মহেশপুর। ঢাকায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের টাইপিস্ট পদে পরীক্ষা ছিল সাড়ে আটটা থেকে ৯টা পর্যন্ত। পরীক্ষা দিয়ে গাবতলী এসেছেন অথচ কোনো বাস পাচ্ছেন না।

মোহাম্মদ হাসানুর রহমান গাজী বলেন, পরীক্ষা দিতে ঢাকায় এসেছি। ভাড়া ৬৫০ টাকা চায়। অথচ এই রুটে ভাড়া ৫০০ টাকা। আবার বাস কখন ছাড়বে তার কোনো হিসাব নাই।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, গাবতলীর বাস কাউন্টারগুলোতে অলস সময় পার করছেন সংশ্লিষ্টরা। মূলত যাত্রীর অপেক্ষায় রয়েছে এসব পরিবহন।

এমওএস/এসএইচএস/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।