ক্লিনিকটি ছিল অবৈধ, ডাক্তার ছাড়াই হতো সিজার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৮:২২ এএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২৩
চট্টগ্রামের ‘নিরাপদ প্রসব সেন্টার’

চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়ায় ‘নিরাপদ প্রসব সেন্টার’ নামে একটি অবৈধ ক্লিনিকে অভিযান চালিয়েছেন জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেলে বাকলিয়া থানার বউ বাজারের সুবর্ণ আবাসিক এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত।

এসময় প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক শাহাদাত হোসেন ও তার স্ত্রী ফাহিমা আকতারকে আটক করা হয়। পরে শাহাদাত হোসেনকে ৬ মাসের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। অন্যদিকে ফাহিমা আকতারকে দেওয়া হয় পুলিশ হেফাজতে। তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজুর নির্দেশও দেন আদালত।

অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন চট্টগ্রামের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. ওয়াজেদ চৌধুরী ও বাকলিয়া থানা পুলিশ।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, গত ১৩ জানুয়ারি ‘নিরাপদ প্রসব সেন্টার’ নামের ক্লিনিকটিতে নরমাল ডেলিভারি করানোর পর জান্নাতুল ফেরদৌস নিহা (২২) নামে এক প্রসূতির মৃত্যু হয়। শাহাদাত হোসেন অবৈধভাবে ক্লিনিকটি চালাচ্ছিলেন। তার স্ত্রী ধাত্রী হলেও বিভিন্ন সময়ে ডাক্তারের অনুপস্থিতিতে নিজে অপারেশন কিংবা নরমাল ডেলিভারি করান বলে অভিযোগ পান ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত জাগো নিউজকে বলেন, বাকলিয়ার বউ বাজার এলাকার একটি অবৈধ ক্লিনিকে অভিযান চালিয়ে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ও তার স্ত্রীকে আটক করা হয়। পরিচালক শাহাদাত হোসেনকে ৬ মাসের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। অন্যদিকে তার স্ত্রীকে থানা পুলিশের জিম্মায় দেওয়া হয়। তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ইকবাল হোসেন/এমএইচআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।