বার্নেট পার্কের শীতপিঠা

ডা. বিএম আতিকুজ্জামান
ডা. বিএম আতিকুজ্জামান
প্রকাশিত: ১১:৫৮ এএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ১২:৪৪ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

কলোনিয়াল রোড ধরে পাইন হিলে বায়ে কাটলাম, খানিকটা বাংলা আটের মতো রাস্তা ধরেই বার্নেট পার্ক। কি হুলস্থুল কাণ্ডই না হচ্ছে এখানে। স্যানফোর্ডের হালিমা বানু এনেছেন পাকন পিঠে, সারারাত ঘুমাননি তিনি পাকনের সাজসজ্জায়। কিসিমির নুরুন্নাহার এনেছেন চিতরুটি আর হাঁসের মাংস পিঠের ব্যাকরণ শুদ্ধ কিনা জানা নেই।

ওকালার মনু মামী এনেছেন গোকুল পিঠে, এতো গোকুল দেখিনি আগে কোনদিন। ডানকান হিলের পারভিন আক্তার এনেছেন পাটিসাপ্টা, ভিতরে ঘন অমৃত ক্ষীর। ডেভেনপোর্টের জেসমিন আপা এনেছেন বেনি পিঠে, বেনিহীন এ রমনির এত গুণ এলো কোত্থেকে কে জানে।

ক্লেয়ারমন্টের মাধবী বৌদির নামকরা বিবিখানা, কেবল স্বাদের নয়, রুপের ও। আমার প্রতিবেশী পারভিন এনেছে চিতই পিঠা, ও যা বানায় সবই হয়ে যায় অতুলনীয়। হেইন সিটির নারমিন ভাবি এনেছেন তালপিঠে, কোথায় যে তাল খুঁজে পেলেন ভাবতেই বেতাল অবস্থা। ওভিডোর স্নিগ্ধা ভেজেছেন ভাজাপিঠা, যশোরের গুঁড়ের গন্ধ বড় ছোঁয়াচে তাতে।

atikujaman1

মনীষার নাড়কেলের নাড়ু, জসিমের চন্দ্র পিঠে ঝটপট উঠে যাচ্ছে হাতে অনায়াসে। পিঠের শিল্প ছাড়িয়েছে কল্পনা। পিঠের শহিদ মিনার, পিঠের জাতিয় স্মৃতিসৌধ পিঠের পালকি, পিঠের বাহারি নৌকো, পিঠের তর্জনি ওঠানো অমর বংগবন্ধু। ওসমানি পরিবার বানাচ্ছেন ধুয়ো ওঠা ভাপা পিঠে, সাজানো আছে চন্দ্রাপিঠে, মুগপাকন, চইপিঠে।

atikujaman1

ভাবি ভাজছেন পিঁয়াজু, তার মেয়ে বানাচ্ছে ফুচকা পিঠের মিষ্টির মাঝে অপরিহার্য টক-ঝাল। শাড়ি চুড়ি গয়না নিয়ে ব্যস্ত একদল ছেলেরা মারছে উজির নাজির। অধিকারী দাদা কষে বাজাচ্ছেন তবলা পৌষের গান গাইছে আমাদের বাচ্চু ভাই।

atikujaman1

অরল্যান্ডোর শীত বড় প্রকট আজ অহেতুকভাবে, রোদ নেই একেবারে, মেঘলা আকাশ। বার্নেট পার্কে সব উষ্ণতা এখন শীতের পিঠে ঘিরে বাঙালির প্রাণের টানে, ভালোবাসার টানে। খদ্দেরের পান্জাবি পড়েছি আর কুমিল্লার খাদি মায়ের হাতে বোনা চাদরে ঢাকা প্রেয়সী। ভালোবাসা ভর করেছে পৌষের এ বিকেলে বার্নেট পার্কের মাঝে, এ সব অসম্ভব সম্ভব পিঠের মাঝে।

atikujaman1

লেখক : পরিপাকতন্ত্র ও লিভার বিভাগীয় প্রধান, ফ্লোরিডা হাসপাতাল, ফ্যাকাল্টি, কলেজ অব মেডিসিন, সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা ইউনিভার্সিটি।

এইচআর/এমএস

বার্নেট পার্কে সব উষ্ণতা এখন শীতের পিঠে ঘিরে বাঙালির প্রাণের টানে, ভালোবাসার টানে। খদ্দেরের পান্জাবি পড়েছি আর কুমিল্লার খাদি মায়ের হাতে বোনা চাদরে ঢাকা প্রেয়সী। ভালোবাসা ভর করেছে পৌষের এ বিকেলে বার্নেট পার্কের মাঝে, এ সব অসম্ভব সম্ভব পিঠের মাঝে।