অনির্বাচিত গুন্ডাতন্ত্রের সরকারকে বিদায় করতে হবে : দুদু

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:২৩ এএম, ০৫ অক্টোবর ২০১৭

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, কি কারণে প্রধান বিচারপতি ছুটিতে রয়েছেন মিডিয়ায় সবটুকু আসেনি, কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় এসেছে। সবাই জানে, সবাই দেখছে কি ভয়ঙ্কর একটা ব্যাপার, সুস্থ মানুষ ঘরের মধ্যে আড়ালে চলে যায়।

তিনি বলেন, এমন একটি সরকারের কাছে আমরা খাদ্য, বাসস্থান, নিরাপত্তা চাচ্ছি। সন্ত্রাসীদের কাছে কোনো মানবতা থাকে না। সন্ত্রাসী এ সরকারকে সরাতে হবে, অনির্বাচিত গুন্ডাতন্ত্রের সরকারকে বিদায় করতে হবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে খেলাফত মজলিস আয়োজিত ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান ও গণহত্যার শিকার রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে রক্ষায় করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

দুদু বলেন, নোবেলের জন্যই তিনি লন্ডনে বসে আছেন পারলে মনে হয় সেটা নিয়েই বাংলাদেশে প্রবেশ করবেন। এজন্য আমি বলব রোহিঙ্গাদের পক্ষে যদি দাঁড়াতে হয়, মানবতার পক্ষে যদি দাঁড়াতে হয়- এ সরকারকে সরাতে হবে এর বিকল্প নেই।

বিএনপির এই নেতা বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে প্রথম বিবৃতি আসে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে। বিবৃতিতে তিনি বলেছিলেন, নির্যাতিত এসব মানুষদের আশ্রয় দিন। সেই সময়ে যদি তা করা হত তাহলে এত মানুষ মারা যেত না, এটা আমলে নেয়া হয়নি; তখন বর্ডার সিল করার কথা ভেবেছে সরকার, ফিরিয়ে দেয়ার কথা ভাবা হয়েছে, পুশব্যাক করা হয়েছে, যার ফলে নৌকা ডুবে অনেকেই মারা গেছেন। তার পরে বর্ডার খুলে দিয়ে আওয়ামী লীগ প্রধানমন্ত্রীকে মানবতার জননী দাবি করেছে। যে কাজটি তিনি করতেই চাননি তার জন্য মানবতার জননী হয়ে গেলেন? ভয়ঙ্কর ব্যাপার। রোহিঙ্গা শিশু নারী বৃদ্ধ কি ভয়াবহ অবস্থায় ছিলো খাবার নেই, চিকিৎসা নেই এই অবস্থায় তাদের জন্য যতটুকু করেছে ততটুকু সরকারের বাহিরের লোকজন করেছে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা মো. ইছাহাকের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন- জাতীয় পার্টির (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, সাংবাদিক মাহবুব উল্লাহ, সংগঠনের মহাসচিব আহমেদ আব্দুল কাদির প্রমুখ।

এএস/এমএম/এএইচ/জেআইএম