সব অপকর্মের কড়ায়গণ্ডায় হিসাব নেব : মঈন খান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:২২ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০১৮

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন, বিএনপি একটি শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। আমরা একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আন্দোলনের মাধ্যমেই আওয়ামী লীগ সরকারের বিদায় ঘটিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত করব। আইনের মাধ্যমে সব অপকর্মের কড়ায়গণ্ডায় হিসাব নেব। খালেদা জিয়াকে চর্তুথবারের মতো প্রধানমন্ত্রী করে রাষ্ট্রপরিচালনা করব।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক প্রতিবাদ সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকাস্থ নরসিংদীবাসী এ প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের সময় সংক্ষিপ্ত হয়ে এসেছে মন্তব্য করে মঈন খান বলেন, সরকার স্বাধীনতার নামে বাংলাদেশের মানুষকে পরাধীন করে রেখেছে। তবে গুম, খুন করে বিরোধী দল দমনে সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করা যাবে না। কারণ দেশে এখন গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও মানুষের মৌলিক অধিকার বলে কিছু নেই। বাস্তবতা হচ্ছে, সত্য কথা বললে ও প্রতিবাদ জানালে তাকে জেলে যেতে হচ্ছে নতুবা গুম হতে হয়।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ক্ষমতাসীন সরকার যতই বিভ্রান্ত ও ষড়যন্ত্র অব্যাহত করুক না কেন আসন্ন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের একক ও অভিন্ন প্রার্থী অংশ নেবে।

দেশে ক্রান্তিকাল চলছে মন্তব্য করে রুহুল কবির বলেন, আমরা এখন নিষ্ঠুর থেকে নিকৃষ্ট সরকারের অধীনে বসবাস করছি। বিচারবহির্ভূত হত্যা, গুম, খুন নিত্য নৈমত্তিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই একটি কথাই স্পষ্ট শেখ হাসিনার হাত থেকে দেশ ও দেশের মানুষকে উদ্ধার করতে না পারলে কারও নিরাপত্তা থাকবে না।

আমি ছাত্র জীবনে ‘রাম ছাত্র’ ছিলাম বলে সম্প্রতি রাষ্ট্রপতির দেয়ার মন্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, এতেদিন আমরা মেধাবী ছাত্র, মাঝারি মেধাবী ছাত্র ও দুর্বল ছাত্রের কথা শুনেছি কিন্তু রাম ছাত্র বলে শুনেনি। সেখানে বর্তমান রাষ্ট্রপতি নিজেকে রাম ছাত্র বলে অবিহিত করেছেন। তাহলে কী আমরা বলব ‘না উন্নয়ন না গণতান্ত্রিক’ বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার হচ্ছে রাম সরকার। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনের সভাপতিত্বে এতে আরো বক্তব্যে দেন দলের  যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু প্রমুখ।

এমএম/জেডএ/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :