সরকারকে জাতীয় সংলাপ আয়োজনের আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৩ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৮

সরকারের অপশাসনে গণতন্ত্র ধ্বংস প্রায়। জনগণের ভোটাধিকারসহ প্রায় সব অধিকারই কেড়ে নিয়েছে সরকার। এ অবস্থায় দেশ চলতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া। তিনি সরকারকে অবিলম্বে জাতীয় সংলাপ আয়োজনের আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, জনগণের অধিকার ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার বিকল্প নাই। জনগণের মুক্তির লক্ষে প্রয়োজনে নতুন সংবিধান প্রণয়ন করতে হবে। সংবিধানে পারষ্পরিক সংঘাতপূর্ণ বিষয়গুলোও সংশোধন করতে হবে। শনিবার দুপুরে যাদু মিয়া মিলনায়তনে শহীদ আসাদ দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেন, চলমান রাজনৈতিক সংকট সমাধানে সংলাপের কোন বিকল্প নাই। সব রাজনৈতিক দল বিশেষ করে ক্ষমতাসীন সরকারের উচিত একগুঁয়েমি নীতি পরিহার করে অবিলম্বে জাতীয় সংলাপের আয়োজন করা।

তিনি বলেন, দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় ৬৯ এর গণতান্ত্রিক আন্দোলনে শহীদ আসাদের লড়াই-সংগ্রাম চেতনার উৎস। একগুঁয়েমি ও প্রতিহিংসার রাজনীতি কখনও দেশ-জাতির কল্যাণ বয়ে আনতে পারে না। জনগণের গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক রাজনৈতিক অধিকার খর্ব করলে এবং গণতন্ত্রকে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে সরকার নিজেই একসময় বিপদে পড়তে বাধ্য। মনে রাখতে হবে গণতন্ত্রকে নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে পৃথিবীতে কোন সরকারই চিরস্থায়ী হতে পারে নাই বরং তাদের পতন হয়েছে অসম্মানজনক। তিনি আরও বলেন, সরকারের গণবিরোধী অবস্থান আর ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার অপরাজনীতি বাংলাদেশের জন্য অভিশাপ বয়ে আনছে। এ অবস্থা থেকে দ্রুত উত্তরণে ৬৯ এর গণতান্ত্রিক আন্দোলনে শহীদ আসাদের প্রদর্শিত পথে গণআন্দোলন গড়ে তোলার কোনো বিকল্প নাই।

ন্যাপ ঢাকা মহানগর সদস্য সচিব মো. শহীদুননবী ডাবলুর সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন গণতান্ত্রিক ঐক্যের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম, ন্যাপ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভূঁইয়া, সাহিত্য-সাংস্কৃতিক সম্পাদক মতিয়ারা চৌধুরী মিনু, ঢাকা মহানগর যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, নরসিংদী জেলা সমন্বয়কারী এখলাছুল হক, যুব নেতা আবদুল্লাহ আল কাউছারী প্রমুখ।

এমএম/ওআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :