আবদুল হামিদের পক্ষে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:১০ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
ফাইল ছবি

রাষ্ট্রপতি পদে মো. আবদুল হামিদের পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কার্যালয় থেকে এ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হয়। জাতীয় সংসদের প্রধান হুইপ আ স ম ফিরোজের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল এ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ বলেন, বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবাদুল হামিদকে দল (আওয়ামী লীগ) মনোনয়ন দিয়েছে। তিনি আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। আওয়ামী লীগ যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা দেশ এবং জাতির কল্যাণে মঙ্গল বয়ে আনবে।

তিনি আরও বলেন, রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ভালো লোক, অত্যন্ত সদালাপী। তিনি রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন। তিনি সারা জীবন রাজনীতি করেছেন, তার জন্য দোয়া কামনা করছি।

বর্তমান রাষ্ট্রপতির আমলে গত জাতীয় সংসদ নির্বাচন হয়েছে কিন্তু অনেক দল অংশ নেয়নি, এবার কি সব দল আসবে? -সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এটা নির্বাচন কমিশনের দেখার বিষয়। কোন দল আসবে আর কোন দল আসবে না। তবে রাষ্ট্রপতি নিজে চান সব দল অংশগ্রহণ করুক। আমি ব্যক্তিগতভাবেও চাই আগামী সংসদ নির্বাচনে সবাই অংশগ্রহণ করুক।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য ৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে হবে। ওইদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে। মনোনয়নপত্র পরীক্ষা করা হবে ৭ ফেব্রুয়ারি। আর প্রত্যাহারের শেষ দিন ১০ ফেব্রুয়ারি।

সংসদ ভবনের অধিবেশন কক্ষে ভোটগ্রহণ হবে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি বিকেল ২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত। তবে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকলে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে না।

president

মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে হুইপ শহিদুজ্জামান সরকার, ইকবালুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদসহ সংশিষ্ট কর্মকর্তারাও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল দায়িত্ব গ্রহণ করা বর্তমান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হবে এ বছরের ২৩ এপ্রিল। সংবিধানের ১২৩ (১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতি পদের মেয়াদ অবসানের কারণে উক্ত পদ শূন্য হইলে মেয়াদ সমাপ্তির তারিখের পূর্ববর্তী ৯০ হইতে ৬০ দিনের মধ্যে শূন্য পদ পূরণের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হইবে।

এইচএস/আরএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :