আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভরাডুবিতে ক্ষুব্ধ প্রধানমন্ত্রী

ফজলুল হক শাওন
ফজলুল হক শাওন ফজলুল হক শাওন , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:০৪ এএম, ০১ এপ্রিল ২০১৮

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের ভরাডুবির কারণে দারুণ মনোক্ষুন্ন হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার গণভবনে দলের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় তিনি এ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর ভরাডুবির কারণ উদঘাটন করতে আওয়ামী লীগের নেতা কাজী জাফর উল্লাহকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান ও ডা. দীপু মনি। কমিটিকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

সূত্র আরও জানায়, বৈঠকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে পরাজয়ের প্রসঙ্গটি ওঠার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুব রেগে যান। তাৎক্ষণিক তিনি কারণ জানতে কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন।

গত বৃহস্পতিবার সারাদেশে স্থানীয় সরকার পরিষদের ১৩৩টি নির্বাচনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে চারটি ছিল পৌরসভা নির্বাচন। এর তিনটিতে আওয়ামী লীগ এবং একটিতে বিএনপি জিতেছে। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৫৩টির মধ্যে আওয়ামী লীগ ২৯, বিএনপি ১২, বিদ্রোহী ৭টি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পাঁচটিতে জয়ী হয়েছেন।

বৈঠকে বিদ্রোহী প্রার্থীর বিষয়টি উঠে এলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাদের কারণে দলীয় প্রার্থী হেরেছে দলের সাংগঠনিক সম্পাদকরা এ বিষয়ে একটি তালিকা তৈরি করবেন। ভবিষ্যতে তাদের দলে রাখা হবে না।

উল্লেখ্য, এর আগের দিন দলের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে নিজেদের লোকেরাই দলীয় প্রার্থির বিরুদ্ধে কাজ করেছে। বিষয়গুলো কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় আলোচনা হবে। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে তিনি বলেছিলেন, বিদ্রোহীদের ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে গেলে দলের সবোর্চ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত হবে। সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় আমরা আলোচনা করতে পারি কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারি না।

এফএইচএস/এএইচ/এমআরএম