বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের কারণ মানুষ জানতে চায় : এরশাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০৩ পিএম, ২১ মে ২০১৮

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ বলেছেন, গত কয়েকমাসে দেশে ৭২টি বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। অথচ প্রতিটি মানুষের বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। জাতি জানতে চায় কেন এ বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড।

সোমাবার রাজধানীর কাকরাইল ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে জাপা ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আয়োজিত ইফতার মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন।

এরশাদ বলেন, রমজান আসলেই নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পায়। অতি মুনাফার জন্য ব্যবসায়ীরা মানুষের রক্ত শোষণ করে। অথচ পৃথিবীর সব রাষ্ট্রেই রমজানে সরকারসহ সব ব্যবসায়ীরা ভর্তুকি দিয়ে থাকে। শুধু এ দেশেই ব্যতিক্রম।

তিনি বলেন, দেশের নো ম্যানস ল্যান্ডে এখনও সাড়ে চার লাখ রোহিঙ্গা মানবেতর জীবন-যাপন করছে। তারা ইফতার ও সেহরি ঠিকমতো করেছে কি-না তার খোঁজ কেউ রাখে না। তাদেরকেও দেশে নিয়ে আসতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান এরশাদ।
সাবেক এ রাষ্ট্রপতি বলেন, ব্যাংকে টাকা নেই। এর হিসেবও নেই। টাকাগুলো গেলো কোথায়? কে দেবে এর হিসেব! অনেকেরই বিদেশে ৪-৫টা বাড়ি। অথচ দেশের মানুষ ঠিকমতো খেতে পারছে না। দেশের সর্বত্রই এ বৈষম্য। এ বৈষম্য দূর করতে হলে জাতীয় পার্টিকে আবারও ক্ষমতায় বসাতে হবে।

জাপা দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিল পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম রুবেল। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন প্রমুখ।

এইউএ/এএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :