জনগণ ভোট দিলে জাতীয় সরকার গঠন করবে যুক্তফ্রন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ২৯ মে ২০১৮

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দৌজা চৌধুরী বলেছেন, জাতীয় নির্বাচনে জনগণ ভোট দিলে ৫ বছরের জন্য দেশে একটি জাতীয় সরকার গঠনে যুক্তফ্রন্ট প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সৎ নেতৃত্বের মাধ্যমে তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তির একটি মঞ্চ হলো যুক্তফ্রন্ট, যা অন্য দুটি রাজনৈতিক শক্তিকে ভারসাম্যের মধ্যে রাখতে পারবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর গুলশানে একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিকল্পধারা বাংলাদেশ আয়োজিত ইফতার অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বি. চৌধুরী বলেন, বিনাবিচারে হাজার হাজার রাজনৈতিক কর্মীকে জেলে আটক রাখা হয়েছে। রাজনৈতিক হয়রানি করতে তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করা হয়েছে। দেশে রাজনৈতিক নির্যাতন ও নিপীড়ন চলছে, গণতন্ত্র নেই। বিরোধী দলকে সভা সমাবেশ করতে দেয়া হয় না। বাংলাদেশের ইতিহাসে বিশাল বাজেট দেয়া হচ্ছে, যার জন্য দুর্নীতি সর্বোচ্চ শিখরে। কোনো সরকারি অফিস দুর্নীতিমুক্ত নয়।

দেশে আইনের শাসন নেই উল্লেখ করে যুক্তফ্রন্টের এই চেয়ারম্যান বলেন, একাধিক টেলিভিশন চ্যানেল ও সংবাদপত্র বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সরকারের নিয়ন্ত্রণে একধিক চ্যানেল।

তিনি বলেন, নির্বাচনকে প্রভাবিত করা হয়, যার সাম্প্রতিক উদাহরণ খুলনা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন। পেশি শক্তি ও অবৈধ অস্ত্রের কারণে গণতান্ত্রিক নির্বাচনের সব সম্ভাবনার অবসান ঘটেছে। এখন জাতীয় নির্বাচন জনগণের মৌলিক দাবি। কিন্তু তার আগে নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করতে হবে।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, কালো টাকার জন্য সামাজিক অস্থিরতা তৈরি হয়েছে, জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে সাধারণ মানুষ, ভোটার ও রাজনৈতিক কর্মীদের জীবনের নিরাপত্তা নেই। নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার নিশ্চয়তা দিচ্ছে যুক্তফ্রন্ট।

নির্বাচনের অন্তত ১০০ দিন আগে সংসদ ভেঙে দেয়ার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, যাতে সংসদ সদস্য ও মন্ত্রীরা নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার করতে না পারে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, ভোটার ও নির্বাচনী কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য নির্বাচনে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েনের দাবি জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, বিকল্প ধারা বাংলাদেশ মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বে ‘যুক্তফ্রন্ট’ নামে নতুন একটি রাজনৈতিক জোট গত বছরের ৪ ডিসেম্বর আত্মপ্রকাশ করে। ওইদিন রাজধানীর উত্তরায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসায় এক বৈঠকে ‘যুক্তফ্রন্ট’ নামে এই জোট গঠন করা হয়। প্রাথমিকভাবে যুক্তফ্রন্টে চারটি দল রয়েছে।

দলগুলো হলো- বিকল্পধারা বাংলাদেশ, আ স ম আবদুর রবের নেতৃত্বাধীন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি), বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ও মাহমুদুর রহমান মান্নার নেতৃত্বাধীন নাগরিক ঐক্য।

এইউএ/জেডএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :