ভোট ডাকাতি প্রতিহত করতে হবে : এরশাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০২ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ নিজ দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, জাতীয় পার্টি আর কোনো দলের ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি হবে না। দলকে আরো সংগঠিত করতে হবে। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে কমিটি করতে হবে। শক্তি সঞ্চয় করতে হবে, কেউ ভোট ডাকাতি করতে চাইলে প্রতিহত করতে হবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক সম্মেলন সিটি’র এক্সপো জোনে আয়োজিত দু’দিনব্যাপী কর্মশালার উদ্বোধনী বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টির নয় বছরের শাসনামল না এলে বাংলাদেশ অন্ধকারেই নিমজ্জিত থাকত। ব্রিটিশ বা পাকিস্তান আমলের অবস্থাতেই থেকে যেত বাংলাদেশ। আমরা উন্নয়ন করেছি, আমরা লুট-পাট করিনি। আমাদের দেশ পরিচালনায় খুন, গুম, সন্ত্রাস ছিল না।

এরশাদ বলেন, আমরা মানুষ খুন করিনি, আমাদের হাতে রক্তের দাগ নেই। তাই দেশের মানুষ আমাদের ভালোবাসে, মানুষ আবারো জাতীয় পার্টির শাসনামল ফিরে পেতে চায়।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আগামী নির্বাচনে তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর প্রচারণায় আমরা সাধারণ মানুষের কাছে যাব। নতুন ভোটারদের আকৃষ্ট করব। নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সাধারণ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করবো, মানুষের মুখে হাসি ফোটাব আমরাই। আমার মতো নির্যাতিত নেতা আর কেউ নেই। এত নির্যাতনের পরও শুধু আল্লাহর রহমত আর মানুষের ভালোবাসায় বেঁচে আছি। মানুষ আমাদের ভুলে যায়নি, আমরা ক্ষমতায় যেতে এখন প্রস্তুত।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় গিয়ে ৫০৮৮ এবং আওয়ামী লীগ ৬০০০ মামলা রাজনৈতিক বিবেচনায় প্রত্যাহার করেছে। কিন্তু আমার নামের মামলাগুলো এখনো আছে। কারণ, জাতীয় পার্টিকে সবাই ভয় পায়, সাধারণ মানুষের মাঝে জাতীয় পার্টির শক্তিশালী অবস্থান আছে।

তিনি বলেন, আমি নিশ্চিত সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জাতীয় পার্টি মানুষের ভালোবাসায় রাষ্ট্র ক্ষমতায় যাবে।

জাতীয় নির্বাচনে আধুনিক ও তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর প্রচারণা শুরুর আগে কর্মসূচিভিত্তিক আলোচনা ও পর্যালোচনাবিষয়ক কর্মশালায় বিভিন্ন বিষয়ে সেশান পরিচালনা করেন পার্টি চেয়ারম্যানের তথ্য-প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা শফিউল্লাহ আল মুনির, পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙা, আজম খান।

এইউএ/এসএইচএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :