অত্যাচার-নির্যাতন করে কেউ টিকে থাকতে পারেনি : নজরুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৪০ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৮
ফাইল ছবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন ‘নেতাদের গ্রেফতার করে, সাজা দিয়ে রাজনীতি ও লড়াই সংগ্রাম বন্ধ করা গেলে দুনিয়াতে আর কোনো পরিবর্তন হতো না। দুনিয়াতে অনেক স্বৈরাচার, ফ্যাসিস্ট সরকার এসেছে। কিন্তু অত্যাচার, নির্যাতন করে তারা কেউ টিকে থাকতে পারেনি।’

তিনি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে শক্তিশালী আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জন্য লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। অবশ্যই এই সরকারের পতন হবে।’

শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে এ আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাজা বাতিল এবং যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেলের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ফোরাম নামে একটি সংগঠন এ সমাবেশের আয়োজন করে।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘ফেসবুকে একটা নিউজ দেখলাম জার্মানির একটি প্রতিষ্ঠান বলছে বাংলাদেশ স্বৈরাচারী রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। এই নিউজ দেখার পর এরশাদ সাহেব মুখে হাত দিয়ে লজ্জিত হয়ে শেখ হাসিনাকে বলছেন আমিও স্বৈরাচার ছিলাম, কিন্তু আন্তর্জাতিক খ্যাতি পাইনি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের জন্য যারা এই ধরনের আন্তর্জাতিক খ্যাতি বয়ে আনছেন সেই সরকারকে শুধু আমরা এইটুকু বলতে পারি যে মহান মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনাকে যদি সত্যিই লালন করেন তাহলে গণতন্ত্রকে অবাধে চলতে দিন। তাকে রুদ্ধ করার চেষ্টা করবেন না।’

তিনি বলেন, ‘ইতিহাস বলে স্বৈরাচারী বা ফ্যাসিস্ট সরকার যত ক্ষমতাবানই হোক না কেন, জনগণের সামনে তাকে নত ও পরাজিত হতে হয়। এই সরকারের পরাজয়ও অবশ্যই হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নেতাদের গ্রেফতার করে, সাজা দিয়ে রাজনীতি ও লড়াই সংগ্রাম বন্ধ করা গেলে দুনিয়াতে আর কোনো পরিবর্তন হতো না। দুনিয়াতে অনেক স্বৈরাচার, ফ্যাসিস্ট সরকার এসেছে। কিন্তু অত্যাচার, নির্যাতন করে তারা কেউ টিকে থাকতে পারেনি।’

এই বিএনপি নেতা আক্ষেপ করে বলেন, ‘স্বাধীনতার এত বছর পরও আমরা নির্বাচনকালীন সরকার ঠিক করতে পারলাম না, গণতান্ত্রিক পরিবেশে জীবন যাপনের স্থায়ী ব্যবস্থা ঠিক করতে পারলাম না।’

আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক আক্তারুজ্জামান বাচ্চুর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, জিনাফ সভাপতি মো. আনোয়ার প্রমুখ বক্তব্য দেন।

কেএইচ/এমএমজেড/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :