দাবি মেনে নিলে অবশ্যই নির্বাচনে যাব : আবদুর রব

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৩৫ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৮
ফাইল ফটো

সরকার দাবি মেনে নিলে অবশ্যই নির্বাচনে যাবেন বলে জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব। শনিবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের তৃতীয় তলায় ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট-এর ঘোষণা’ অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আবদুর রব বলেন, সরকার বলছে আমরা ষড়যন্ত্র করছি। ড. কামাল হোসেন কোনোদিন ষড়যন্ত্র করেন নাই। আমি আ স ম আবদুর রব কোনোদিন ষড়যন্ত্র করি নাই। ষড়যন্ত্রে বিশ্বাস করি না। ষড়যন্ত্রকারীদের ক্ষমাও নাই। আমরা নির্বাচনে যেতে চাই।

তিনি বলেন, জনগণ কর্তৃত্ববাদী স্বৈরাচারী শাসকের হাত থেকে রক্ষা চায়। জনগণ শান্তি চায়, জনগণ নিরাপত্তা চায়। জনগণ আতঙ্কিত, শঙ্কিত। একাত্তরের ঐক্য ছিল বাঙালি জাতির সর্ববৃহৎ ঐক্য। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ৭২ সালে দলীয় সরকার কায়েমের মধ্য দিয়ে সেই মহান জাতীয় ঐক্যকে হত্যা করা হয়েছিল। দীর্ঘ ৪৬ বছর পর আজকে আমাদের শ্রদ্ধাভাজন নেতা ড. কামাল হোসেন এবং বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বে আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছি।

আ স ম আবদুর রব বলেন, বদরুদ্দোজা চৌধুরী অসুস্থতার কারণে হোক -উনি এখানে উপস্থিত হতে পারেননি। আমার বিশ্বাস শুধু আজকে আমরা যারা উপস্থিতি আছি তারা নয়, আগামীকাল থেকে সারা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের যে রাজনৈতিক দল, প্রগতিশীল দল, গণতান্ত্রিক দল, বামপন্থী দল, ব্যক্তি, গোষ্ঠি, জ্ঞানী, বুদ্ধিজীবী সবাই আমাদের সাথে ঐক্যবদ্ধ হবেন।

জেএসডি সভাপতি বলেন, জনগণের ঐক্য ৫২ সালে মুক্তি দিয়েছিল, জনগণের ঐক্য ৬৬ সালের ৬ দফার ঐক্য, জনগণের ঐক্য আগারতলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে বের করে এনেছে, জনগণের ঐক্যে ৬৯- সালে ১১ দফা আন্দোলনে আমরা জয় লাভ করেছি। জনগণের ঐক্যে ৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে আমরা জয় লাভ করেছি। আমার বিশ্বাস আজকে আপনাদের এ সাড়া, আন্তরিকতা, সহযোগিতা, ভালোবাসায় বাংলাদেশের মাটি থেকে চিরদিনের জন্য স্বৈরশাসনকে উৎখাত করতে পারব।

ঐক্যফ্রন্টের এ নেতা বলেন, সরকার ষড়যন্ত্র করে আন্দোলনকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। বিভিন্ন চক্রান্ত করতে পারে। ধৈয্য ধরে সহনশীলতার সাথে সকল ষড়যন্ত্র-চক্রান্তকে মোকাবেলা করতে হবে। জনগণকে সাথে নিতে হবে। জনগণকে বাদ দিয়ে কোনো দলীয়, একক কোনো কর্মকাণ্ড দিয়ে এ আন্দোলনকে সফল করা যাবে না। মানুষ শান্তি চায়, শান্তিতে ঘুমাতে চায়। আইনের শাসন চায়।

তিনি আরও বলেন, আগামী দিনে যাতে আর কোনো স্বৈরশাসক ক্ষমতায় না আসে; হত্যা, গুম, খুন, দুর্নীতি যেন না হয়, দেশের অর্থ যেন পাচার না হয় তার জন্য আজকে জনগণ ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে ড. কামাল হোসেনর নেতৃত্বে। আগামী দিনের আন্দোলনে আমরা জনগণের সাথে থাকব। কথা দিচ্ছি, জনগণের শান্তির বিরুদ্ধে বাংলাদেশে কোনো দলীয় শাসন আর আসতে দেয়া হবে না।

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমীন, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এইউএ/আরএস

আপনার মতামত লিখুন :