বি. চৌধুরীকে সুকৌশলে বের করে দেয়া হয়েছে : ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০৩ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৮

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে সুকৌশলে বিকল্প ধারার বি চৌধুরীকে বের করে দেয়া হয়েছে। এ ধরনের ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে নির্বাচনকেন্দ্রিক আওয়ামী লীগ কিংবা মহাজোটে কোনো ভয় নেই। কারণ ঐক্যফ্রন্টের তেল আর জলে মেশানোর অপচেষ্টা ব্যর্থ হবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর বনানীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ১৫ তলা বিশিষ্ট নতুন ভবনের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

‘নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বৈঠক চলাকালীন একজন কমিশনার নোট অব ডিসেন্ট দিয়ে বেরিয়ে গেছেন, কথা বলার সুযোগ না দেয়ায়। এর আগেও তিনি একই কাজ করেছিলেন। তার এই কাজে বিএনপির ইসি পুনর্গঠনের দাবি কি জোরালো হলো না?’ এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সার্চ কমিটির মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন কমিশন (ইসি) পুনর্গঠন করেছেন। স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি, নোট অব ডিসেন্ট দিয়ে বেরিয়ে যাওয়া তালুকদার সাহেব বিএনপি মনোনীত। এটা নিরাপত্তা পরিষদ (জাতিসংঘ) না। এখানে একজন ভিন্নমত পোষণ করতেই পারেন। বাকিরা সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নিতেই পারেন। একজনের ভিন্নমতের জন্য ইসি পুনর্গঠনের দাবি অযৌক্তিক। এটা প্রতিবন্ধকও নয়। মেজোরিটির সিদ্ধান্তই এখানে চূড়ান্ত।

‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ষড়যন্ত্র করছে বলে আপনি অভিযোগ তুলেছেন। আপনার কাছে কি সুনির্দিষ্ট কোনো প্রমাণ রয়েছে যে ঐক্যফ্রন্ট ষড়যন্ত্র করছে?’ জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘বিকল্পধারা থাকুক তা বিএনপির জন্য স্বস্তিদায়ক ছিল না। কারণ বি চৌধুরী তাদের আমলে রাষ্ট্রপতি ছিলেন, তাকে কীভাবে বের করে দেয়া হয়েছে সবাই জানে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে সুকৌশলে বি চৌধুরীকে বের করে দেয়া হয়েছে। তিনি অপমানজনক অবস্থায় পড়েছেন। বাড়িতে ডেকে কেউ থাকেন না। ঘরের দরজা খোলা হয় না। এ ধরণের ঐক্য ইউনিক না। এখানে তেলে আর জলে মেশানোর যে অপচেষ্টা তা অচিরেই ব্যর্থ হবে।

ড. কামাল রাজনীতিতে সিনিয়র। তবে তিনি আওয়ামী লীগ থেকে বের হয়ে মনে করেছিলেন তার পেছনে হাজার হাজার লোক জোট বাঁধবেন, জনসমর্থন পাবেন। আসলে তিনি জনবিচ্ছিন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে কোনো রকমে টিকে আছেন।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র শেখ হাসিনাকে হটানোর জন্য ড. কামাল সাহেবের তারেক জিয়ার নেতৃত্বও মেনে নিতে আপত্তি থাকবে না। জাতীয় ঐক্য আসলে কে চায়? বিএনপি। আর বিএনপি কে চালায়? লণ্ডন থেকে তারেক জিয়া। তারেক জিয়ার অঙ্গুলি হেলনেই বিএনপি চলছে। ঐক্যফ্রন্টও চালাবেন। ড. কামাল সেটা ভাল করেই জানেন। তার লক্ষ্য আসলে ক্ষমতায় যাওয়া নয়, ছলে বলে কৌশলে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতা থেকে সরানো।

বিকল্পধারা যদি আওয়ামী লীগ তথা মহজোটে যেতে চায় তাহলে আপনারা নেবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা নিয়ে এখনই বলা ঠিক হবে না। এ বিষয়ে ওয়ার্কিং কমিটিতে সিদ্ধান্ত হবে। দলের সিদ্ধান্ত ছাড়া আমরা অগ্রসর হতে পারি না। সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা হবে।

তিনি বলেন, বিআরটিএ’র আধুনিকায়ন জরুরি হয়ে পড়েছিল। এলেনবাড়ির পুরাতন ভবনে ঠাসাঠাসি অবস্থায় সংস্থাটির কার্যক্রম পরিচালনা ছিল কষ্টকর। তাই আমরা বিআরটিএ’র জন্য ৭৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৫ তলা বিশিষ্ট এ ভবন নির্মাণ করেছি। প্রধানমন্ত্রী সহসাই এ ভবন উদ্বোধন করবেন।

জেইউ/আরএস/এমএমজেড/পিআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :