‘কোনো নেতার রেফারেন্স দেবেন না, লাইনে আসেন’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৩:৫৪ পিএম, ১০ নভেম্বর ২০১৮

‘যারা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করবেন তারা সবাই দয়া করে লাইনে আসেন। কেউ কোনো নেতার রেফারেন্স দিয়ে লাইন ভাঙার চেষ্টা করবেন না। এখন আমাদের একটাই পরিচয়, আমরা সবাই শেখ হাসিনার কর্মী। প্রার্থীর সঙ্গে একজন যেতে পারবেন। মিছিলের লোক পিছনে যান।’

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আজ (শনিবার) আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির কার্যালয়ে আগ্রহী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের দ্বিতীয় দিন দুপুর ১২টায় গেট থেকে মাইকে চিৎকার করে এসব কথা বলছিলেন একজন।

মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের দ্বিতীয় দিন শনিবার নেতাকর্মীদের পদচারণায় ধানমন্ডির কার্যালয় ও আশপাশের এলাকা মুখরিত ছিল। ব্যান্ডপার্টি, ঢোল-তবলা, বর্ণিল মিছিল টি-শার্ট ও মোটরসাইকেল, নির্বাচনের প্রতীক ছোটবড় নৌকা নিয়ে শোভাযাত্রা সহকারে রাজধানীসহ সারাদেশের প্রার্থী বা তাদের পক্ষে নেতাকর্মীরা শোডাউন করে হাজির হন।

উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে গোটা এলাকায়। তবে এতে ধানমন্ডি ২৭ নম্বর থেকে জিগাতলা রোড হয়ে চলাচলে সাধারণ মানুষকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। রিকশা, মিনিবাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল সব যানবাহনকে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে।

বেলা সাড়ে ১১টা, ধানমন্ডি মেডিনোভা হাসপাতালের সামনে থেকে লালসালু উড়িয়ে এক যুবককে দৌড়ে আসতে দেখা যায়। তার পেছনে আওয়ামী লীগ নেতা সাদেক খানের সমর্থক নেতাকর্মীদের শতাধিক মোটরসাইকেলের বহর।

তখন আওয়ামী লীগ অফিসের বাইরে মাইক হাতে নেতাকর্মীদের সরে লেকের ভিতর মিছিল ও স্লোগান দিতে বলা হয়। কিন্তু কে শোনে কার কথা? হুড়োহুড়িতে কেউ হাত ঘড়ি, কেউবা মানিব্যাগ হারিয়েছেন। এ সময় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পংকজ দেবনাথ মাইকে হারানো জিনিস ফেরত নিতে তার সঙ্গে যোগাযোগের আহ্বান জানাচ্ছিলেন।

এমইউ/এমএমজেড/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :