একুশের চেতনা স্বাধীনতার সূচনা : মোস্তফা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩৪ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, ৫২’র ২১শে ফেব্রয়ারির ভাষা আন্দোলন ছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূচনা। আজ আমাদের যে স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ, অগণিত মানুষের রক্তের সিঁড়ি বেয়েই তা অর্জিত হয়েছে। তাই একুশ আমাদের অহংকার, আমাদের প্রেরণা। ভাষাপ্রেম আমার জন্মগত অধিকার। এ অধিকার কেড়ে নেয়ার শক্তি নেই কারোর। আর পারেওনি কেউ।

তিনি বলেন, আমরা আমাদের অধিকার রক্ষায় ৫২তে প্রাণ দিয়েছি, ৬৯-এ রক্ত দিয়েছি, ৭১-এ শহীদ হয়েছি। তবুও কেউ পারেনি আমাদের দমাতে।

মঙ্গলবার নয়াপল্টনে যদু মিয়া মিলনায়তনে মহান ভাষা শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, যে ভাষা আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে স্বাধীনতা আন্দোলনের সূচনা, দুঃখজনক হলেও সত্য সেই ভাষা সৈনিকদের সঠিক ও পরিপূর্ণ তালিকা রাষ্ট্র তৈরি করতে পারেনি। এই ব্যর্থতা ক্ষমার অযোগ্য। রাষ্ট্রের উচিত খুবই দ্রুত ভাষা সৈনিকদের তালিকা প্রণয়ন করে আগামী প্রজন্মের হাতে তুলে দেয়া। এখানে কোনো রাজনৈতিক ফারাক তৈরি করা উচিত হবে না।

তিনি বলেন, মওলানা ভাসানী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, কাজী গোলাম মাহবুব, অলি আহাদ, ভাষা মতিন, গাজীউল হকসহ সকল ভাষা বীরদের রাাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদান করা জাতি হিসাবে আমাদের সকলেরই দায়িত্ব। সব ভেদাভেদ ভুলে আমাদের দেশকে ঐক্য ও সংহতির মাধ্যমে আরও অনেক দূর নিয়ে যেতে হবে। ভাষা দিবসে আমাদের অঙ্গীকার হোক- দল মত নির্বিশেষে সব শ্রেণির সব ধর্মের মানুষকে নিয়ে এ দেশকে আরও সুন্দর করি।

ন্যাপ ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলুর সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন- এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ন্যাপ প্রেসিডিয়াম সদস্য শিশু ভাষা সৈনিক সুব্রত বারুরী, ভাইস চেয়ারম্যান কাজী ফারুক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মেহেদী হাসান হাওলাদার, যুব নেতা আবদুল্লাহ আল কাউছারী প্রমুখ।

কেএইচ/এনএফ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :