বিএনপিতে উপেক্ষিত দেলোয়ার পরিবার!

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৩৮ এএম, ১৯ মার্চ ২০১৯

বিএনপির সাবেক মহাসচিব প্রয়াত খোন্দকার দেলেয়ার হোসেনের পরিবার দলে উপেক্ষতি বলে অভিযোগ করেছেন দেলোয়ারপুত্র বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট খোন্দকার আখতার হামিদ ডাবলু।

সোমবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন। খোন্দকার দেলোয়ারের হোসেনে অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে খোন্দকার দেলোয়ার স্মৃতি ফাউন্ডেশন এ স্মরণসভার আয়োজন করে।

ডাবলু তার বাবার রাজনৈতিক সততা, আদর্শ তুলে ধরে বলেন, আজ বিএনপিতে আমাদের মূল্যায়ন করা হয়নি। আমি এবং আমার বড় ভাই ড. খোন্দকার আকবর হোসেন দলে কি সম্পাদক, সহ-সম্পাদক পদ পেতে পারতাম না।

দলের আদর্শবান নেতাকর্মীদের মূল্যায়নের তাগিদ দিয়ে ডাবলু বলেন, কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি গঠন হলে বিএনপি আবারও ঘুরে দাঁড়াবে। প্রথমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি।

খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের জ্যেষ্ঠ পুত্র ড. আকবর হোসেন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ‘হাঁটা’ কর্মসূচির প্রস্তাব করেন। তিনি বলেন, প্রয়োজনে আমরা সবাই মিলে পায়ে হেঁটে জেলখানা অভিমুখে যেতে পারি।

তৃণমূল নেতাদের মতামত বিবেচনার জন্য সিনিয়র নেতাদের প্রতি দাবি রেখে আকবর হোসেন বলেন, জজকোর্ট এলাকায় অনেক বিএনপিকর্মী মামলার হাজিরা দিতে আসেন। আমি সেখানে গিয়ে দেখেছি তার মধ্যে এমনও রয়েছেন যাদের টাকা দেয়ার সামর্থ্য নেই। যার জন্য উকিলরা তাদের অনেক বেশি কথা বলেন, অপমান করেন। তাদের জন্য আইনি সহায়তার সেল গঠনের দাবি জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, আমি অনেক দেশে ঘুরছি। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষ অল্পতে খুশি। তারা বেশি কিছু চায় না। কোনো নেতাকে ফোন দিলে তারা যদি একটু হেসে কথা বলেন তাতেই তারা খুশি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খোন্দকার দেলোয়ারপুত্র ডা. দেলোয়ারা পান্না, ছড়াকার আবু সালেহ, বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট জামিল, খোন্দকার দেলোয়ার স্মৃতি ফাউন্ডেশন নেতা অ্যাডভোকেট তৌহিদ প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

কেএইচ/বিএ