কামালকে নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মোয়াজ্জেম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩১ পিএম, ২৪ মার্চ ২০১৯

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যাওয়া এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনকে নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন।

রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে বিএনপির সাবেক মহাসচিব কে এম ওবায়দুর রহমানের ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠিত এক স্মরণসভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে মোয়াজ্জেম বলেন, ‘কেন এই নির্বাচনে আমরা গেলাম। কথা হলো- নির্দলীয় সরকার ছাড়া নির্বাচন হবে না, কিন্তু তাতো হলো না। দলীয় সরকারের অধীনেই হলো। কথা হলো খালেদা জিয়া ছাড়া নির্বাচন হবে না। কিন্তু খালেদা জিয়া ছাড়া আমরা নির্বাচনে গেলাম।’

তিনি বলেন, ‘তারপরও কেন সেই নির্বাচন। কেন এ অবস্থা হলো? কেন আজও খালেদা জিয়া জেলে? কেন একটা দাবিও সরকার মানলো না, কী কারণে এটা হলো? এর কারণ অবশ্যই বের করতে হবে। যদি বের করতে ব্যর্থ হই, আবার ব্যর্থ হবো। আমার অনেক প্রশ্ন আছে আজকে এখানে করবো না। দলীয় মিটিংয়ে বলবো।’

কে এম ওবায়দুর রহমান স্মৃতি সংসদ এ সভার আয়োজন করে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের প্রতি ইঙ্গিত করে আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘আমি স্বাধীনতার ইতিহাস জানি। সে সময়ে কে যায়নি ভারতে, আমরা সব চলে গেলাম। এনটায়ার কেবিনেট চলে গেল। গর্ভনর হাউজে (বর্তমান বঙ্গভবন) ইয়াহিয়া খানের সাথে কথা বলার সময়ে যে ব্যক্তি ছিল সর্বক্ষণ, সে গেল না।’

তিনি বলেন, ‘তাজউদ্দিন আহমেদ সাহেবের রিসেন্টলি একটা বই বেরিয়েছে সেটা আপনারা পড়বেন- সেটাতে লেখা আছে তার যাওয়ার কথা ছিল আমাদের সাথে। সে যায়নি। আমি নাম বলতে চাই না এই মুহুর্তে। ১৪ জুন পর্যন্ত ঢাকা থাকলেন, তারপর জিওসি টেলিফোন করে বললেন, আমাকে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দাও। পাঠিয়ে দেয়া হলো। ’

bnp

মোয়াজ্জেম বলেন, ‘আমরা তার ইতিহাস জানি। বাংলাদেশের তার কোনোদিন কোনো আসন ছিল না। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে এক সময়ে সে (ড. কামাল হোসেন) বৃদ্ধ সাত্তার সাহেব (বিচারপতি আবদুস সাত্তার), আমার চাচাশ্বশুর দুরসম্পর্কে, তার কাছে এক কোটি ভোটে হেরেছিলেন।’

বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যানের প্রশ্ন, ‘আমরা তাকে নেতা মানলাম। কেন ফখরুল (মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর) কী দোষ করেছিলেন? মহাসচিব ফখরুল, আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। আমাদের তো অন্য কারও দরকার নেই। আমাদের কারও দরকার ছিল না। আমরা যা পারি করবো, না পারলে করবো না, নির্বাচন করবো না। কিন্তু এটা কী হলো? ঠাটা পড়লো সমগ্র জাতির ওপরে। ’

শাহ মোয়াজ্জেমের বক্তব্যের সময়ে মঞ্চে বসা জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না, বিএনপি মহাসচিবসহ নেতাদের বিব্রত দেখাচ্ছিলো।

সভায় সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি টিএম গিয়াস উদ্দিন এবং পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক শাহজান মিয়া সম্রাট ।

কেএইচ/এনএফ/পিআর